বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে দ্বিতীয় জনপ্রিয় ভাষা বাংলা  » «   ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে সাব-রেজিস্ট্রার আটক  » «   আর কোনো হায়েনার দল বাংলার বুকে চেপে বসতে পারবে না  » «   সিলেটে মুক্তিযুদ্ধের পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করলেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   ফের জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি সালমা ইসলাম এমপি  » «   বিয়ানীবাজারে ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আয়কর দিবস উপলক্ষে সিলেটে বর্ণাঢ্য র‌্যালি  » «   এবার শ্রীমঙ্গলে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন  » «   বেলজিয়ামে মসজিদে তালা দেওয়ায় বাংলাদেশিদের প্রতিবাদ  » «   পায়রা উড়িয়ে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সম্মেলন উদ্বোধন  » «   ভারতের অর্থনীতির দুরবস্থা, জিডিপি কমে সাড়ে ৪ শতাংশ  » «   পায়রা উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা  » «   লন্ডন ব্রিজে আবারও সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ২  » «   চীন থেকে মা-বাবার জন্য পেঁয়াজ নিয়ে এলেন মেয়ে  » «   রক্তে ভাসছে ইরাক, নিহত ৮২  » «  

ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে দুদক চেয়্যারম্যান‘দেশের কোচিং সেন্টারগুলো দুর্নীতির আখড়া’



নিউজ ডেস্ক::দেশের কোচিং সেন্টারগুলো দুর্নীতির আখড়া বলে মন্তব্য করেছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। শনিবার (৩১ মার্চ) ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে দুদক সততা সংঘের সমাবেশ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

সম্প্রতি সচিবালয়ে দেশের সব কোচিং সেন্টারই অবৈধ বলে জানান শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। এ ধরনের অবৈধ প্রতিষ্ঠান বন্ধ করতে না পারার জন্য নিজের অসহায়ত্বও প্রকাশ করেন মন্ত্রী।

শিক্ষামন্ত্রীর কথার পরিপ্রেক্ষিতে ইকবাল মাহমুদ বলেন, ‘দেশের কোচিং সেন্টারগুলো শুধু অবৈধ নয় দুর্নীতির আখড়াও। আমরা সরকার, ছাত্র-শিক্ষক, অভিভাবক সবাইকে অনুরোধ জানাচ্ছি, এই অবৈধ এবং দুর্নীতিগ্রস্ত কোচিং সেন্টারগুলো বন্ধ করতে উদ্যোগ গ্রহণ করি।’

সভাপতির বক্তব্যে দুদক চেয়ারম্যান আরও বলেন, ‘যেকোনও মূল্যে সম্মিলিতভাবে বাংলাদেশে প্রশ্নপত্র ফাঁস এবং কোচিং বাণিজ্য চিরতরে বন্ধ করতে হবে। আমাদের সন্তানরা সারাদিন কোচিং সেন্টারের নামে ঘুরে বেড়াবে তা হতে পারে না।’

শিক্ষকদের উদ্দেশে ইকবাল মাহমুদ বলেন, ‘আপনারাই জাতি গঠনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ। আপনাদের সুযোগ-সুবিধা, সামাজিক মর্যাদা, বেতন বৃদ্ধিসহ সব উন্নয়নে দুদক আপনাদের পাশে থাকবে। শ্রেণিকক্ষে এমন শিক্ষার ব্যবস্থা করুন যাতে আমাদের সন্তানদের কোচিং সেন্টারে যেতে না হয়।’

এসময় তিনি শিক্ষকদের পক্ষে দাবি জানান, ‘সরকার বেতন বৃদ্ধি করেছে ঠিকই কিন্তু আমরা চাই শিক্ষকদের বেতন-ভাতা, মর্যাদা আরও বৃদ্ধি করা হোক।’

‘সম্ভাবনাময় তরুণ প্রজন্মকে মানবসম্পদে পরিণত করতে হবে’ জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘তোমরা এ প্লাস কিংবা ফলাফলের পিছনে না ছুটে পরিপূর্ণ জ্ঞান অর্জনে মনোনিবেশ করো। তোমরাই হবে দেশের সবচেয়ে দক্ষ, সক্ষম এবং সামর্থ্যবান অমূল্য মানবসম্পদ।’

অনুষ্ঠানের শুরুতেই দুদক চেয়ারম্যান সততা সংঘের সদস্যদের শপথবাক্য পাঠ করান। তিনি সততা সংঘের সদস্যদের উদ্দেশে বলেন, ‘ভবিষ্যতে দুদকের কার্যক্রম সততা সংঘের সদস্যদের মাধ্যমেই পরিচালিত হবে।’

সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন- দুদক কমিশনার ড. নারিউদ্দীন আহমেদ, কমিশনার এ এফ এম আমিনুল ইসলাম, দুদক সচিব ড. মো. শামসুল আরেফিন, মহাপরিচালক (প্রতিরোধ) মো. জাফর ইকবাল প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, দুর্নীতি দমন কমিশন তরুণ প্রজন্মের মধ্যে সততা, নিষ্ঠাবোধ ও চারিত্রিক দৃঢ়তা সৃষ্টি করা, দুর্নীতির বিরুদ্ধে তীব্র ঘৃণা সৃষ্টি করা এবং সর্বোপরি গণসচেতনতা গড়ে তোলার কার্যক্রমে শিক্ষার্থীদের সম্পৃক্ত করার উদ্দেশে দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির উদ্যোগে দেশের স্কুল, মাদ্রাসা, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রাবাস এবং প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ইত্যাদি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রায় ২৫ হাজার সততা সংঘ গঠন করেছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: