সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সিলেটে বিএনপি নেতাকর্মীদের মারধর ও ধরপাকড়ের অভিযোগ  » «   আটকে রেখে তিন সাংবাদিককে পেটালো বুয়েট ছাত্রলীগ  » «   সিরিয়ায় মসজিদ ধ্বংস করল মার্কিন জোট  » «   বাবার স্বপ্ন পূরণে বড় চাকরি ছেড়ে আপনাদের সেবায় এসেছি: রেজা কিবরিয়া  » «     » «   নির্বাচনে ‘সংঘাত’ একেবারে উড়িয়ে দেওয়া যায় না: সিইসি  » «   জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ২৫ সদস্যের সমন্বয়ক কমিটি  » «   আফগানিস্তানে মার্কিন বিমান হামলায় ১২ শিশুসহ নিহত ২০  » «   মহান বিজয় দিবসে জাতীয় স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা  » «   চমক থাকছে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারে  » «   দুই-তিন দিনের মধ্যে ইসিতে যাবে বিএনপি  » «   কাদের সিদ্দিকী রাজাকার, বদমাইশ : মির্জা আজম  » «   নির্বাচনের ৭ দিন আগে ব্যালট পৌঁছে যাবে: ইসি সচিব  » «   রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করতে চান ড. কামাল  » «   যুক্তরাষ্ট্র-অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড কানাডায় বোমা হামলার হুমকি  » «  

ওসমানীতে সন্তান জন্মদানের ৩ ঘন্টার মধ্যে প্রসূতি নিখোঁজ



15নিউজ ডেস্ক :: সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে সন্তান জন্মদানের ৩ ঘন্টার মধ্যে এক প্রসূতি নিখোঁজের ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি নিয়ে তোলপাড় সৃষ্টি হলে অনেক খোঁজাখুজির পর মহিলার সন্ধান মিলেছে পাঠানটুলাস্থ রাগিব-রাবেয়া হাসপাতালে।
সোমবার সকাল পৌনে ৮টার দিকে নিখোঁজের ঘটনা ঘটেছে। ১১টার দিকে তার খোঁজ পায় পরিবারের সদস্যরা। নিখোঁজ প্রসূতি রোজিনা বেগম (২৩) সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার ফাতেমানগর গ্রামের আফাজ উদ্দিনের স্ত্রী।
আফাজ উদ্দিন জানিয়েছেন, ওসমানী হাসপাতালের ১৫নং ওয়ার্ডের বি-১৬ নং বেডে ভর্তি হওয়ার পর সোমবার ভোর রাতে ছেলে সন্তানের জন্ম দেন রোজিনা। বিশ্রাম কক্ষ থেকে সকালে ওয়ার্ডে নিয়ে আসার পর পৌনে ৮টা থেকে তার খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। হাসপাতালে ও আশপাশে খোঁজাখুঁজি করেও তার কোনো সন্ধান মিলেনি।
বিষয়টি নিয়ে হাসপাতালে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে সকাল ১১টা ২ মিনিটে নগরীর রাগীব-রাবেয়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ৮নং ওয়ার্ডে খোঁজ পাওয়া যায় রোজিনার।
আফাজ উদ্দিনের অভিযোগ, তার স্ত্রী ঠিকমতো হাঁটতেও পারছেন না। হাসপাতালে থাকা কোনো দালালচক্র তাকে রাগীব-রাবেয়া হাসপাতালে নিয়ে যেতে পারে।
ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তা ইব্রাহীম আলী জানিয়েছেন, প্রসূতি সন্তান জন্মদানের কারণে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। তিনি মানসিকভাবে কিছুটা বিধ্বস্ত ছিলেন।
হাসপাতালে যখন পরিচ্ছন্নতা চলছিল তখন রোগির স্বজনরা একটু বাইরে ছিলেন। ওইসময় হাটতে হাটতে রোজিনা হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে যান। একটি সিএনজি-অটোরিকশা রাগিব-রাবেয়ায় হাসপাতালে পৌঁছে দিয়েছে বলে আমরা জেনেছি। তবে, বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত চলছে বলে জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: