বুধবার, ১৮ জুলাই ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
২৭ জুলাই খালেদার মুক্তি দাবিতে জাতিসংঘের সামনে বিক্ষোভ  » «   মৌসুমি বায়ু দুর্বল, বর্ষার বর্ষণ নেই  » «   সিলেটে দুর্ঘটনায় কলেজ ছাত্রের মৃত্যু  » «   হরিণাকুণ্ডুতে র‌্যাবের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাত সদস্য নিহত  » «   পুলিশের সোর্স মামুন মাদক ব্যবসায়ীর স্ত্রীকে নিয়ে উধাও  » «   ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা কিশোরি, সালিসে জরিমানার টাকা ভাগাভাগি!  » «   আইনমন্ত্রীর বাসায় প্রধানমন্ত্রী  » «   ‘এদেরকে নিয়েই মান্না সাহেব দুর্নীতির বিরুদ্ধে যুদ্ধ করিবেন’  » «   রাশিয়ায় বিশ্বকাপ দেখতে গিয়ে পুলিশের জালে বাংলাদেশী যুবক  » «   বিদেশ ও জেল থেকে আন্ডারওয়ার্ল্ড নিয়ন্ত্রণ করছে শীর্ষ সন্ত্রাসীরা  » «   বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন রাষ্ট্রদূত মনোনীত রবার্ট মিলার  » «   বেবী নাজনীন অসুস্থ, হাসপাতালে ভর্তি  » «   কোটা আন্দোলন: ছাত্রলীগের হুমকিতে ক্যাম্পাস ছাড়া চবি শিক্ষক  » «   ভেবেই ক্লাব বদল করেছেন রোনালদো  » «   ভারতে নিষিদ্ধ, অন্য দেশে পুরস্কৃত যেসব ছবি  » «  

ওসমানীতে সন্তান জন্মদানের ৩ ঘন্টার মধ্যে প্রসূতি নিখোঁজ



15নিউজ ডেস্ক :: সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে সন্তান জন্মদানের ৩ ঘন্টার মধ্যে এক প্রসূতি নিখোঁজের ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি নিয়ে তোলপাড় সৃষ্টি হলে অনেক খোঁজাখুজির পর মহিলার সন্ধান মিলেছে পাঠানটুলাস্থ রাগিব-রাবেয়া হাসপাতালে।
সোমবার সকাল পৌনে ৮টার দিকে নিখোঁজের ঘটনা ঘটেছে। ১১টার দিকে তার খোঁজ পায় পরিবারের সদস্যরা। নিখোঁজ প্রসূতি রোজিনা বেগম (২৩) সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার ফাতেমানগর গ্রামের আফাজ উদ্দিনের স্ত্রী।
আফাজ উদ্দিন জানিয়েছেন, ওসমানী হাসপাতালের ১৫নং ওয়ার্ডের বি-১৬ নং বেডে ভর্তি হওয়ার পর সোমবার ভোর রাতে ছেলে সন্তানের জন্ম দেন রোজিনা। বিশ্রাম কক্ষ থেকে সকালে ওয়ার্ডে নিয়ে আসার পর পৌনে ৮টা থেকে তার খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। হাসপাতালে ও আশপাশে খোঁজাখুঁজি করেও তার কোনো সন্ধান মিলেনি।
বিষয়টি নিয়ে হাসপাতালে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে সকাল ১১টা ২ মিনিটে নগরীর রাগীব-রাবেয়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ৮নং ওয়ার্ডে খোঁজ পাওয়া যায় রোজিনার।
আফাজ উদ্দিনের অভিযোগ, তার স্ত্রী ঠিকমতো হাঁটতেও পারছেন না। হাসপাতালে থাকা কোনো দালালচক্র তাকে রাগীব-রাবেয়া হাসপাতালে নিয়ে যেতে পারে।
ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তা ইব্রাহীম আলী জানিয়েছেন, প্রসূতি সন্তান জন্মদানের কারণে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। তিনি মানসিকভাবে কিছুটা বিধ্বস্ত ছিলেন।
হাসপাতালে যখন পরিচ্ছন্নতা চলছিল তখন রোগির স্বজনরা একটু বাইরে ছিলেন। ওইসময় হাটতে হাটতে রোজিনা হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে যান। একটি সিএনজি-অটোরিকশা রাগিব-রাবেয়ায় হাসপাতালে পৌঁছে দিয়েছে বলে আমরা জেনেছি। তবে, বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত চলছে বলে জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: