শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ডিজিটাল নিরাপত্তা বিল সংসদে ফেরত পাঠানোর আহ্বান  » «   কোনো বইকে নিষিদ্ধ করা ঠিক নয় : অর্থমন্ত্রী  » «   সিলেটে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে লাল কার্ড প্রদর্শন ও মানববন্ধন  » «   ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক হবে প্রধানমন্ত্রীর  » «   কাশ্মীর বিদ্রোহী নেতার নামে পাকিস্তানের ডাকটিকিটি প্রকাশ  » «   সংসদ নির্বাচনে হুমকি ‘সাইবার ক্রাইম’, গুজব ঠেকাতে সজাগ পুলিশ  » «   তাঞ্জানিয়ায় ফেরি ডুবি, নিহত বেড়ে ১৩৬  » «   আইনগত অনুমোদন পেলেই সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার: সিইসি  » «   সরকারি চাকরিজীবীদের কার জন্য কত টাকা গৃহঋণ  » «   গণেশের ছবি দিয়ে বিজ্ঞাপন: হিন্দুদের কাছে ট্রাম্পের দলের দুঃখ প্রকাশ  » «   প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন পেলো কোটা বাতিলের সুপারিশ  » «   রেলের আধুনিকায়নে দুই হাজার কোটি টাকার প্রকল্প  » «   কেন মুনকে বিশেষ সেই ‘পবিত্র পর্বতে’ নিয়ে গেলেন কিম?  » «   সুখোই কিনলে ভারতকেও নিষেধাজ্ঞায় পড়তে হবে!  » «   প্রধানমন্ত্রী নিউইয়র্কের পথে লন্ডন পৌঁছেছেন  » «  

ওসমানীতে সন্তান জন্মদানের ৩ ঘন্টার মধ্যে প্রসূতি নিখোঁজ



15নিউজ ডেস্ক :: সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে সন্তান জন্মদানের ৩ ঘন্টার মধ্যে এক প্রসূতি নিখোঁজের ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি নিয়ে তোলপাড় সৃষ্টি হলে অনেক খোঁজাখুজির পর মহিলার সন্ধান মিলেছে পাঠানটুলাস্থ রাগিব-রাবেয়া হাসপাতালে।
সোমবার সকাল পৌনে ৮টার দিকে নিখোঁজের ঘটনা ঘটেছে। ১১টার দিকে তার খোঁজ পায় পরিবারের সদস্যরা। নিখোঁজ প্রসূতি রোজিনা বেগম (২৩) সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার ফাতেমানগর গ্রামের আফাজ উদ্দিনের স্ত্রী।
আফাজ উদ্দিন জানিয়েছেন, ওসমানী হাসপাতালের ১৫নং ওয়ার্ডের বি-১৬ নং বেডে ভর্তি হওয়ার পর সোমবার ভোর রাতে ছেলে সন্তানের জন্ম দেন রোজিনা। বিশ্রাম কক্ষ থেকে সকালে ওয়ার্ডে নিয়ে আসার পর পৌনে ৮টা থেকে তার খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। হাসপাতালে ও আশপাশে খোঁজাখুঁজি করেও তার কোনো সন্ধান মিলেনি।
বিষয়টি নিয়ে হাসপাতালে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে সকাল ১১টা ২ মিনিটে নগরীর রাগীব-রাবেয়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ৮নং ওয়ার্ডে খোঁজ পাওয়া যায় রোজিনার।
আফাজ উদ্দিনের অভিযোগ, তার স্ত্রী ঠিকমতো হাঁটতেও পারছেন না। হাসপাতালে থাকা কোনো দালালচক্র তাকে রাগীব-রাবেয়া হাসপাতালে নিয়ে যেতে পারে।
ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তা ইব্রাহীম আলী জানিয়েছেন, প্রসূতি সন্তান জন্মদানের কারণে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। তিনি মানসিকভাবে কিছুটা বিধ্বস্ত ছিলেন।
হাসপাতালে যখন পরিচ্ছন্নতা চলছিল তখন রোগির স্বজনরা একটু বাইরে ছিলেন। ওইসময় হাটতে হাটতে রোজিনা হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে যান। একটি সিএনজি-অটোরিকশা রাগিব-রাবেয়ায় হাসপাতালে পৌঁছে দিয়েছে বলে আমরা জেনেছি। তবে, বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত চলছে বলে জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: