শনিবার, ১৭ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
২২ আগস্ট থেকে গ্রুপ চ্যাট বন্ধ করে দিচ্ছে ফেসবুক  » «   রাজনীতিতে আসছেন প্রধানমন্ত্রী কন্যা পুতুল?  » «   সৌদিতে সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশি হাজী নিহত, আহত ১৭  » «   ফের পাক-ভারত সীমান্তে গোলাগুলি  » «   গভীর রাতে স্ত্রীকে মেডিকেলে নেয়ার ভয়াবহ বর্ণনা দিলেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট  » «   মিরপুরে বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় পুড়েছে ৬০০ ঘর, ধ্বংসস্তুপে চলছে অনুসন্ধান  » «   বেফাঁস মন্তব্যে ফাঁসলেন জাকির নায়েক, হারাচ্ছেন নাগরিকত্ব  » «   কাশ্মীরে খুলছে স্কুল-কলেজ, তুলে নেওয়া হচ্ছে সব ধরনের নিষেধাজ্ঞা  » «   কাশ্মীর সঙ্কট নিয়ে নিরাপত্তা পরিষদের রুদ্ধদ্বার বৈঠক সম্পন্ন, নাখোশ ভারত  » «   শিক্ষামন্ত্রীর স্বামীকে দেখতে গেলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   চীনে টাইফুন লেকিমার আঘাত: নিহত ২৮, ঘরছাড়া ১০ লাখ  » «   কেমন হবে এবার কাশ্মিরীদের ঈদ?  » «   কেন ঈদ যাত্রায় ভোগান্তি, কারণ বললেন সেতুমন্ত্রী  » «   কংগ্রেসের অন্তর্বর্তীকালীন সভাপতি সোনিয়া গান্ধী  » «   সড়ক-রেল-নৌ: সব যাত্রা পথেই ভোগান্তি  » «  

ঐশ্বরিয়া রাই’কে বিয়ে করছেন আলোচিত লালুর ছেলে



আন্তর্জাতিক ডেস্ক::ভারতের বিহার রাজ্যের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ও বিহারের রাষ্ট্রীয় জনতা দল বা আরজেডির প্রধান লালু প্রসাদ যাদবের বড় ছেলে তেজ প্রতাপ যাদবের বিয়ে ঠিক হয়েছে। পাত্রীর নাম ঐশ্বরিয়া রাই। না, ইনি বলিউড সুন্দরী ঐশ্বরিয়া বচ্চন রাই নন। তিনি বিহারের প্রাক্তন মন্ত্রী চন্দ্রিকা প্রসাদ রাইয়ের মেয়ে।

ঐশ্বরিয়া রায়ের সঙ্গে চলতি মাসের শেষের দিকেই বাগদান সম্পন্ন হবে তেজ প্রতাপ যাদবের। আসন্ন মাসেই বিয়ে হবে তাদের। ইতিমধ্যে বিয়ের স্থান চূড়ান্ত করা হয়েছে।

দুর্নীতির মামলায় বর্তমানে কারাবন্দি রয়েছেন লালু প্রসাদ। বিয়েতে অংশ নেয়ার জন্য তাকে প্যারোলে মুক্তি দেয়া হতে পারে।

বিহারের ন্যাশনাল কলেজ পড়ুয়া তেজ প্রতাপ তার আগ্রাসী রাজনৈতিক বক্তব্যের জন্য আলোচিত। তেজ প্রতাপ ২০১৫ সালে গঠিত জোট সরকারের মন্ত্রিসভার সদস্য ছিলেন। যদিও বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার জোট ছেড়ে যাওয়ায় সে সরকার ভেঙে যায়। তার বাবা লালুর নিরাপত্তা ব্যবস্থার ক্যাটাগরির অবনমন করায় তেজ প্রতাপ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর চামড়া তুলে ফেলারও হুমকি দিয়েছিলেন একবার।

আর পাত্রী ঐশ্বরিয়া দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইতিহাসে স্নাতক। তার মা চন্দ্রিকা রায় লালুর একাধিক মন্ত্রিসভার সদস্য ও ছয়বারের বিধায়ক ছিলেন। তার দাদা দারোগা প্রসাদ রয় ছিলেন কংগ্রেসের বর্ষিয়ান নেতা। তিনি ১৯৭০ এর দশকে ১১ মাস মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: