মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
নতুন সড়ক পরিবহন আইন কার্যকরের ‘বিরোধিতায়’ ১১ জেলায় বাস চালানো বন্ধ  » «   নগরীতে ৪৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে পিয়াজ, ক্রেতাদের দীর্ঘ লাইন  » «   বলিভিয়ার অশান্তির নেপথ্যে ‘সাদা সোনা’, যা পরবর্তী বিশ্বের আকাঙ্ক্ষিত বস্তু  » «   আবরার হত্যা: পলাতক চারজনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি  » «   ‘অপকর্মে’ সংকুচিত দ. কোরিয়ার শ্রমবাজার  » «   ৩০০ টাকার পিয়াজ সরকারের দিনবদলের সনদ: ডাকসু ভিপি নুর  » «   অযোধ্যা রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন করছে মুসলিমরা  » «   ভাঙছে শরিক দল সঙ্কটে ঐক্যফ্রন্ট  » «   হলি আর্টিসান হামলা: রায় ২৭ নভেম্বর  » «   চাকা ফেটেছে নভোএয়ারের, ভাগ্যগুণে বেঁচে গেলেন ৩৩ যাত্রী  » «   হাত-পা ছাড়াই মুখে ভর করে লিখে পিইসি দিচ্ছে লিতুন  » «   প্রধানমন্ত্রীকে দেয়া বিএনপির চিঠিতে আবরার হত্যার বর্ণনা  » «   ১৫০ যাত্রী নিয়ে মাঝ আকাশে বিপাকে ভারতীয় বিমান, রক্ষা করল পাকিস্তান  » «   বিমান ছাড়াও ট্রেন, ট্রাক, বাসে করে আসছে পেঁয়াজ: সিলেটে পরিকল্পনামন্ত্রী  » «   চুক্তির তথ্য জানতে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিল বিএনপি  » «  

ঐশ্বরিয়া রাই’কে বিয়ে করছেন আলোচিত লালুর ছেলে



আন্তর্জাতিক ডেস্ক::ভারতের বিহার রাজ্যের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ও বিহারের রাষ্ট্রীয় জনতা দল বা আরজেডির প্রধান লালু প্রসাদ যাদবের বড় ছেলে তেজ প্রতাপ যাদবের বিয়ে ঠিক হয়েছে। পাত্রীর নাম ঐশ্বরিয়া রাই। না, ইনি বলিউড সুন্দরী ঐশ্বরিয়া বচ্চন রাই নন। তিনি বিহারের প্রাক্তন মন্ত্রী চন্দ্রিকা প্রসাদ রাইয়ের মেয়ে।

ঐশ্বরিয়া রায়ের সঙ্গে চলতি মাসের শেষের দিকেই বাগদান সম্পন্ন হবে তেজ প্রতাপ যাদবের। আসন্ন মাসেই বিয়ে হবে তাদের। ইতিমধ্যে বিয়ের স্থান চূড়ান্ত করা হয়েছে।

দুর্নীতির মামলায় বর্তমানে কারাবন্দি রয়েছেন লালু প্রসাদ। বিয়েতে অংশ নেয়ার জন্য তাকে প্যারোলে মুক্তি দেয়া হতে পারে।

বিহারের ন্যাশনাল কলেজ পড়ুয়া তেজ প্রতাপ তার আগ্রাসী রাজনৈতিক বক্তব্যের জন্য আলোচিত। তেজ প্রতাপ ২০১৫ সালে গঠিত জোট সরকারের মন্ত্রিসভার সদস্য ছিলেন। যদিও বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার জোট ছেড়ে যাওয়ায় সে সরকার ভেঙে যায়। তার বাবা লালুর নিরাপত্তা ব্যবস্থার ক্যাটাগরির অবনমন করায় তেজ প্রতাপ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর চামড়া তুলে ফেলারও হুমকি দিয়েছিলেন একবার।

আর পাত্রী ঐশ্বরিয়া দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইতিহাসে স্নাতক। তার মা চন্দ্রিকা রায় লালুর একাধিক মন্ত্রিসভার সদস্য ও ছয়বারের বিধায়ক ছিলেন। তার দাদা দারোগা প্রসাদ রয় ছিলেন কংগ্রেসের বর্ষিয়ান নেতা। তিনি ১৯৭০ এর দশকে ১১ মাস মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: