সোমবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
শুধুমাত্র আইন দিয়ে দুর্নীতি দমন করা যায় না: আইনমন্ত্রী  » «   জামায়াতের সবারই রাজ্জাকের মতো ভুল ভাঙা উচিত: ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ  » «   সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা জা‌নি‌য়ে মোদিকে শেখ হাসিনার বার্তা  » «   গুগলে ‘টয়লেট পেপার’ লিখলে আসছে পাকিস্তানের পতাকা  » «   পাকিস্তানের সেনাবাহিনী ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট হ্যাক করেছে ভারত?  » «   সাত বছরে ৬৩ বার পেছালো সাগর-রুনি হত্যা মামলার প্রতিবেদন  » «   তিন দিনের সীমান্ত সম্মেলনে বিএসএফ প্রতিনিধিদল বাংলাদেশে  » «   বড় রাজনৈতিক দল অংশ না নেওয়া ইসির জন্য হতাশাজনক: সিইসি  » «   পাকিস্তানকে কী করতে পারবে ভারত?  » «   বঙ্গবীর ওসমানীর জন্ম-মৃত্যুবার্ষিকী রাষ্ট্রীয়ভাবে পালনের দাবি  » «   দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় সা’দপন্থীদের ইজতেমা শুরু  » «   মোদির স্বপ্ন কখনোই পূরণ হবে না, পাল্টা হুঙ্কার পাকিস্তানের  » «   চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩৫ করার খবরটি ‘টোটালি ফলস’  » «   শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে: খাদ্যমন্ত্রী  » «   জামায়াত নতুন নামে পুরনো চরিত্রে ফিরে আসে কিনা তা ভাবনার বিষয়  » «  

ঐতিহাসিক পিয়ংইয়ং সফরে সস্ত্রীক প্রেসিডেন্ট মুন



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: দুই কোরিয়ার মধ্যকার শীতল সম্পর্ক উষ্ণ হতে শুরু করেছে চলতি বছরের গোড়ার দিক থেকেই। দু দেশের সম্পর্ক উন্নয়নে এবার আরো এক ধাপ এগিয়ে গেলো দুই নেতা।উত্তর কোরিয়ান নেতা কিম জং উনের সঙ্গে বৈঠক করতে সস্ত্রীক পিয়ংইয়ং পৌঁছেছেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জে-ইন।

মঙ্গলবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকালে তিন দিনের সফরে পিয়ংইয়ং পৌঁছেছেন প্রেসিডেন্ট মুন এবং তার স্ত্রী কিম জং সুক।বিমানবন্দরে মুন ও তার স্ত্রীকে উষ্ণ অভ্যর্থণা জানান স্বয়ং প্রেসিডেন্ট কিম এবং তার স্ত্রী রি সোল জু। দীর্ঘ এক দশকেরও বেশি সময় পর দক্ষিণ কোরিয়ার কোন শীর্ষ নেতা এবারই প্রথম পিয়ংইয়ং সফরে গেলেন।সেই বিচারে মুনের এই সফর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

চলতি বছর এ নিয়ে তৃতীয়বারের মত বৈঠক করতে চলেছেন কিম আর মুন।এর আগে গত এপ্রিল মাসে এক ঐতিহাসিক বৈঠকে অংশ নিয়েছিলেন ওই দুই নেতা।এরপর ফের বৈঠকে করেন তারা।যদিও ওই দুটি বৈঠকে কোনো চুক্তি স্বাক্ষর হয়নি।

মঙ্গলবারের বৈঠকে তারা কি নিয়ে আলোচনা করবে তাৎক্ষণিকভাবে তা জানা যায়নি।তবে ধারণা করা হচ্ছে, দুই নেতার বৈঠকে কোরীয় উপদ্বীপকে পরমাণু মুক্ত করার বিষয়টি প্রাধাণ্য পাবে।এছাড়া দুই কোরিয়ার মধ্যে সহযোগিতা ও সৌহার্দ্য পুনঃপ্রতিষ্ঠার বিষয়গুলো নিয়েও তারা আলোচনা করবেন।

এর আগে চলতি বছরের গোড়ার দিকে আরো দুটি বৈঠকে অংশ নিয়েছিলেন কিম ও মুন।এছাড়া গত জুনে সিঙ্গাপুরে ডোনাল্ড ট্রাম্প আর কিমের মধ্যে যে এক ঐতিহাসিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছিল সেখানেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জে-ইন।

সূত্র: বিবিসি

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: