মঙ্গলবার, ২১ অগাস্ট ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অনুমতি ছাড়া সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীকে গ্রেপ্তার নয়  » «   দেশের উন্নতির জন্য বিলাসীতা ত্যাগের ঘোষণা ইমরানের  » «   ঈদে ৮ দিন ২৪ ঘণ্টা সিএনজি ফিলিং স্টেশন খোলা  » «   আজ আরাফার দিন, কিছু আমল যা আপনিও করতে পারবেন  » «   সিলেটে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশী তাপমাত্রা, সতর্ক থাকার পরামর্শ  » «   সুনামগঞ্জে বাস চাপায় কলেজ ছাত্রী নিহত,দুই শিশুসহ আহত ৪  » «   ইরানে অভ্যুত্থান ঘটানোর সকল মার্কিন চেষ্টা ব্যর্থ হবে: জারিফ  » «   নাইজেরিয়ায় বোমা হামলায় নিহত ১৯  » «   মেঘনা তেল ডিপোতে অগ্নিকাণ্ড, নিহত ২  » «   ভোটার হওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন কুয়েত, সিঙ্গাপুর ও যুক্তরাজ্যের প্রবাসীরা  » «   ঘন্টায় ১৮০ কিমি বেগে টোকিওর দিকে ঘূর্ণিঝড় ‘শানশান’  » «   মক্কায় ভারী বৃষ্টিপাতে বন্যার আশঙ্কা  » «   ক্যারিয়ার গড়তে রাজনীতিতে আসিনি: ইমরান খান  » «   সীমান্তে ভারী অস্ত্র-সেনা বাড়াচ্ছে মিয়ানমার, সতর্ক বিজিবি  » «   সন্তান জন্ম দিতে সাইকেল চালিয়ে হাসপাতালে গেলেন মন্ত্রী  » «  

এ কেমন বর্বরতা?মায়ের হাত কেটে নিল ছেলে!



নিউজ ডেস্ক::ফরিদপুর সদর উপজেলার কৃষ্ণনগর এলাকায় সৎ মায়ের হাত কেটে নিয়েছে ছেলে। ভুক্তভোগী ওই নারীর নাম রেশমা বেগম (৩০)। তিনি ওই গ্রামের নুর ইসলাম শেখের দ্বিতীয় স্ত্রী। তার সৎ ছেলের নাম আল আমিন শেখ (২১)।

রবিবার (১৩ মে) উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের নরসিংহদিয়া গ্রামে এ নির্মম ঘটনাটি ঘটে।

রেশমা বেগম জানিয়েছেন, তিনি লেবাননে থাকাকালীন সময়ে মোবাইল ফোনে প্রতিবেশী নুর ইসলামের সঙ্গে তা কথা হতো। এরপর তাদের মধ্যে প্রণয়ের বা প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ৫ মাস আগে লেবানন থেকে দেশে ফেরার পর প্রতিবেশী নুর ইসলামের সঙ্গে আহত রেশমা বেগমের বিয়ে হয়।

কিন্তু বিয়ের পর থেকে নুর ইসলামের প্রথম স্ত্রী আকলিমা ও তার ছেলে আল আমিন ঝগড়া-বিবাদ লাগিয়ে রাখতেন তার সঙ্গে। এ ঘটনার জেরে রবিবার (১৩ মে) সকালে হঠাৎ করেই আল আমিন ধারালো দা দিয়ে তার দ্বিতীয় বা সৎ মা রেশমা বেগমের দুই হাত ও পায়ে এলোপাথারি কোপায়।

এ ঘটনার পরে গ্রামবাসীরা রেশমা বেগমকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে স্বামী নুর ইসলাম জানান, তিনি দ্বিতীয় বিয়ে করায় ছেলে ক্ষিপ্ত ছিল। তার দুই স্ত্রী আলাদা বাড়িতে থাকেন। ছেলে তার দ্বিতীয় মাকে মেনে নিতে না পেরে এমন ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে জানান তিনি।

হাসপাতালের চিকিৎসক অনাদীরঞ্জন মণ্ডল বলেন, রেশমার বাম হাত কব্জির ওপর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। ডান হাতেও গুরুতর জখম রয়েছে। এ ছাড়া দুই পা ও শরীরে কোপানো হয়েছে তাকে।

এ ব্যাপারে কোতোয়ালি থানার ওসি এএফএম নাসিম জানান, উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের নরসিংহদিয়া গ্রামে এ রকম ঘটনা ঘটেছে বলে শুনেছি। বিষয়টি খোঁজখবর নিয়ে দেখা হচ্ছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: