শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
দ্য হান্ড্রেডের ড্রাফটে আরও ৫ বাংলাদেশি ক্রিকেটার  » «   বাংলা একাডেমির সুপারিশে বদলে গেল বাংলা বর্ষপঞ্জি  » «   ওসমানীনগরে নামাজের সময় মাছ বিক্রি বন্ধ  » «   মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে হংকং ‘ডেমোক্রেসি অ্যাক্ট’ পাস  » «   গুগল ম্যাপে আবরারের নামে হল, খুনিদের নামে শৌচাগার  » «   গণশপথ নিয়ে আন্দোলনের ইতি টানলেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা  » «   দক্ষিণ আফ্রিকায় মসজিদে যাওয়ার পথে গুলিতে বাংলাদেশির মৃত্যু  » «   তুরস্কের বিরুদ্ধে লড়তে কুর্দিদের ‘প্রশিক্ষণ দিয়েছিল’ যুক্তরাষ্ট্র  » «   অপরাধ প্রতিরোধে সাংবাদিকরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন: পুলিশ সুপার  » «   আবরার হত্যা: ২০ জনকে আসামি করে চার্জশিট হচ্ছে  » «   কানাইঘাটে ১১টি ভারতীয় গরু আটক  » «   জাবির গণরুম: ম্যানার শেখানোর নামে নবীন শিক্ষার্থী নির্যাতন  » «   কতগুলো বাটপার আছে যারা জাতীয় নেতা: ভিপি নুর  » «   ১৫ দিনে পাসপোর্ট না হলে কারণ জানিয়ে দিতে হবে আবেদনকারীকে  » «   ভারতে পালানোর সময় আবরার হত্যার আসামি সাদাত গ্রেফতার  » «  

এবার ওয়াকিটকি চায় ইসি, বাজেট ২ হাজার কোটি টাকা



নিউজ ডেস্ক:: আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন স্বচ্ছ ও সুষ্ঠুভাবে আয়োজন করতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) পর এবার ওয়াকিটকি ব্যবহার করতে চায় নির্বাচন কমিশন (ইসি)।এর জন্য সরকারের কাছে অতিরিক্ত ২ হাজার ৫২ কোটি টাকা বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে।গত বুধবার (১০ অক্টোবর) ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের সই করা এক চিঠিতে অর্থ সচিব (ভারপ্রাপ্ত) আব্দুর রউফ তালুকদার কাছে এই বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শনিবার ( ১৩ অক্টোবর) দুপুরে ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।পরে অর্থ সচিবকে পাঠানো চিঠির একটি কপি কাছে রয়েছে জানালে ইসি সচিব বলেন,‘কপি থাকলে লিখেন,আমাকে কেন ফোন দিয়েছেন? আমি এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করব না।কাগজপত্র না দেখে মন্তব্য করা ঠিক হবে না ’

অর্থ মন্ত্রণালয়ে পাঠানো ওই চিঠিতে বলা হয়েছে,আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বচ্ছতা ও নিরপেক্ষতা বজায় রাখতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) পাশাপাশি স্যাটেলাইট ফোন বা ডিজিটাল মোবাইল রেডিও কমিউনিকেশন সিস্টেম (ওয়াকিটকি) ব্যবহার করতে চায় ইসি।এই দুই পদ্ধতি ব্যবহার করতে হলে ইসির আরও দুই হাজার ৫২ কোটি টাকা প্রয়োজন।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের আওতায় ‘ইউজ অব ডিজিটাল মোবাইল রেডিও কমিউনিকেশন সিস্টেমস (ওয়াকিটকি) ইন ইলেকশন’ শীর্ষক প্রকল্প গ্রহণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে উল্লে করে চিঠিতে বলা হয়েছে, পরিকল্পনা কমিশন এরই মধ্যে প্রকল্পটিতে নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে।প্রকল্পটির জন্য চীন সরকারের ৫৩ কোটি টাকা অনুদান পেতে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের মাধ্যমে ঢাকায় চীনা দূতাবাসে চিঠি পাঠানো হয়েছে বলেও চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, মধ্যমেয়াদি বাজেট কাঠামোর (এমটিবিএফ) আওতায় নির্বাচন কমিশনের প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নে ২০১৮-১৯ অর্থবছরে এক হাজার ১৪৫ কোটি ৭৫ লাখ টাকা পর্যন্ত সিলিং ঠিক করা হয়েছে।ফলে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সীমিত সংখ্যক আসনে ভোটগ্রহণ ও ফলাফল প্রকাশ করতে ইভিএম ও ওয়াকিটকি ব্যবহার করতে মধ্যমেয়াদি বাজেট কাঠামোর আওতায় ২০১৮-১৯ অর্থবছরে মোট ২ হাজার ৫২ কোটি টাকা অতিরিক্ত বরাদ্দ প্রয়োজন।

এর আগে, নির্বাচনে ভোটগ্রহণ ও ভোটগণনায় স্বচ্ছতা আনতে গত ৩০ আগস্ট ইসির কমিশন সভায় জাতীয় নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারের জন্য গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশে সংশোধনী আনে ইসি। পরে এ সংক্রান্ত একটি প্রকল্প প্রস্তাব সরকারের কাছে পাঠানো হয়। পরে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) ৩ হাজার ৮২৫ কোটি ৩৪ লাখ টাকা ব্যয়ে দেড় লাখ ইভিএম মেশিন কেনার প্রকল্পটি অনুমোদন দেয়।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: