সোমবার, ২৪ জুন ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
প্রথমবার সিলেট-চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রুটে উড়বে ইউএস-বাংলা  » «   ভূমিকম্পে কেঁপে উঠলো ইন্দোনেশিয়ায়-জাপান-অস্ট্রেলিয়া  » «   ভোটকেন্দ্রেই ঘুমিয়ে পড়লেন কর্মকর্তা  » «   ‘জয় শ্রীরাম’ না বলায় পিটিয়ে মুসলিম যুবককে হত্যা  » «   নয়াপল্টনে একের পর এক ককটেল বিস্ফোরণ  » «   অফিসে বসে বসে শুধু কি চা খাইলে হবে? দেশপ্রেম থাকতে হবে: হাইকোর্ট  » «   বিকেলের মধ্যে উদ্ধার কাজ শেষ হবে: রেলসচিব  » «   বাংলাদেশের নামে সড়কের নামকরন যুক্তরাষ্ট্রে  » «   সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন বাড়লেও দুর্নীতি কমছে না : টিআইবি  » «   দেশসেরা প্রধান শিক্ষক হবিগঞ্জের শাহনাজ কবীর  » «   বাঘের খাবারও চুরি হয় ঢাকা চিড়িয়াখানায়, ফেসবুকে ভাইরাল  » «   দুই মাস ওমরাহ ভিসা স্থগিত করল সৌদি  » «   বীমার আওতায় যেসব সুবিধা পাচ্ছে সরকারি চাকরিজীবীরা  » «   কারাগারে সুনামগঞ্জের আ. লীগ নেতা শামীম আহমদ  » «   মুক্তি পেয়ে নতুন যে বাড়িতে থাকবেন খালেদা  » «  

এক টেবিলে আওয়ামী লীগ-বিএনপির ইফতার



নিউজ ডেস্ক:: রাজধানীতে গণফোরামের অনুষ্ঠানে এক টেবিলে বসে ইফতার করেছেন আওয়ামী লীগ ও বিএনপির শীর্ষস্থানীয় নেতারা। রোববার রাজধানীর রাজমনি ঈসা খাঁ হোটেলে ‘সাদাফুলের রেস্তোরায়’ গণফোরামের উদ্যোগে ইফতার মাহফিলে এ দৃশ্য দেখা গেছে।

ইফতার মাহফিলের প্রথম টেবিলে গণফোরাম, বিএনপি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরীক দলসহ দেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সিনিয়ন নেতাদের নিয়ে আসন গ্রহণ করেন ড. কামাল হোসেন। ইফতার শুরু প্রায় ৫ মিনিট আগে অনুষ্ঠানে উপস্থিত হন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সমস্য লে. কর্ণেল (অব.) ফারুক খান।

এসময় ড. কামাল হোসেনসহ উপস্থিত বিভিন্ন দলের রাজনৈতিক নেতারা ফারুক খানকে স্বাগত জানান ও কুশল বিনিময় করেন। পরে কামাল হোসেনের সামনের চেয়ারে বসেন ফারুক খান। আর কামাল হোসেনের বাম পাশের চেয়ারে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মঈন খান এবং ডান পাশে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বসেন। এছাড়া ওই টেবিলে বিএনপি যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন ও সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলালও বসে ইফতার করেন।

এর আগে গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেন, আমরা ইফতারের রাজনীতি করি না। আমরা গণতন্ত্রের রাজনীতি করি। আর এখানে কোন রাজনৈতিক বেশ ধরি নাই, সবাইকেই বলেছি। কিন্তু এখানে কে আসলো, আর কে ওখানে গেলে- সেটা আমি জানতেও চাই না এবং শুনতেও চাই না।

পরে ফারুক খান বলেন, আমি আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে আপনাদেরকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই, এ অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগকে দাওয়াত করার জন্য। এখানে আসার আগে প্রধানমন্ত্রী আমাকে জানিয়েছেন, তিনি ব্যক্তিগত কারণে এখানে উপস্থিত থাকতে পারছেন না। কিন্তু তিনি তার এবং আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে আপনাদেরকে রমজান ও ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

ইফতারে গণফোরাম নেতা রেজা কিবরিয়া, সুব্রুত চৌধুরী, মোকাব্বির খান, জগলুল হায়দার আফ্রিক, মোশতাক আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনসহ প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: