বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
দুই প্রকৌশলীকে পেটালেন আওয়ামী লীগ-ছাত্রলীগ নেতারা  » «   সিলেটে বিদেশী মদসহ ৪ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার  » «   রেল লাইন সংস্কারের দাবিতে শাহবাগে সিলেটি শিক্ষার্থীদের মানববন্ধবন  » «   আসামে নাগরিক তালিকা থেকে বাদ পড়লেন আরও এক লাখ  » «   বিশ্বনাথে ডাকাতের সঙ্গে গোলাগুলি, ৫ পুলিশ গুলিবিদ্ধ  » «   প্রাথমিকে চলতি দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষকদের জন্য সুখবর  » «   স্বাস্থ্যসনদ পেলেন সাড়ে ৬২ হাজার হজ গমনেচ্ছু  » «   হবিগঞ্জে পিস্তল ঠেকিয়ে মোটরসাইকেল ছিনতাই  » «   সাংবাদিকদের বিক্ষোভ কর্মসূচি, ক্ষমা চাইতে হবে দুদককে  » «   যুক্তরাষ্ট্রে যাবার সময় নদীতে ডুবলো শরণার্থী বাবা-মেয়ে  » «   দেশে ফিরছেন সাগরে ভাসা আরও ২৪ বাংলাদেশি  » «   অস্ট্রেলিয়ায় আগুনে পুড়ে ৩ ভাই-বোন নিহত  » «   অবশেষে বরখাস্ত ডিআইজি মিজান  » «   সরকারি চাকরিতে ডোপটেস্ট বাধ্যতামূলক করা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   ঘুষ নেয়ার ভিডিও করায় সাংবাদিককে পেটাল পুলিশ, ৪ পুলিশ সদস্য ক্লোজড  » «  

এই শ্রাবণ’ গেয়ে মুগ্ধ করলেন নোবেল, ভুল ধরলেন শান্তুনু!



বিনোদন ডেস্ক:: জি বাংলার ‘সারেগামাপা’য় নোবেল এবার গাইলেন কলকাতার জনপ্রিয় ‘বাইশে শ্রাবণ’ ছবির গান ‘এই শ্রাবণ’। গানটি গাওয়ার পর বিচারক মোনালি ঠাকুর ও শ্রীকান্ত আচার্য বেশ ভালো মন্তব্য করলেন। কিন্তু অন্য আরেক বিচারক শান্তুনু মৈত্রকে দেখা যায় গানটির চুলচেরা বিশ্লেষণ করতে।

নোবেল ‘এই শ্রাবণ’ গানটি গেয়ে বিচারকদের কাছ থেকে ৩০ নম্বরের মধ্যে ২৯ নম্বর পেয়েছেন। এক নম্বর কম দিয়েছেন শান্তুনু মৈত্র। শান্তুনু মৈত্রর মতে, নোবেলের দুয়েক জায়গায় একটু সমস্যা হয়েছিল গানটি গাইতে। সেই জায়গাগুলো ঠিক থাকলে আজকেও নোবেল গোল্ডেন গিটার পেতেন।

তবে এই বিষয়টি ভক্তরা ভালোভাবে নিতে পারেননি। একজন ভক্ত মন্তব্য করেছেন, এই মুহূর্তে এটা স্পষ্ট যে নোবলে এই প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হচ্ছেন না, হয়তো টিআরপি বা অনুষ্ঠানের মান নিয়ে প্রশ্ন জাগবে এজন্য তাকে ফাইনাল পর্যন্ত নেওয়া হবে। কেন হঠাৎ এ সন্দেহ? গতকাল নোবেল, এ শ্রাবন (বাইশে শ্রাবন মুভি থেকে) গান গায়।

অনুষ্ঠানে শ্রীকান্ত দা এবং মোনালি যখন তাদের পূর্ণ মার্ক প্রদান করে এবং প্রশংসা করে সেখানে শান্তনু মৈত্র বলে উনি নাকি গানের প্রথম অংশ ঠিক ভাবে বুঝতে পারছিলেন না! প্রশ্ন করতে চাই, তাহলে বাকিরা কেমন করে বুঝল? উনি এমন একটা ত্রুটি তুলে ধরলেন যা সত্যি হাস্যকর। নোবেলের মুখটা নাকি ঠিকভাবে খুলছিল না! আমি অপেক্ষা করছিলাম, যদি উনি দেখিয়ে দিতেন কিভাবে এই গানে মুখ কতটা খোলার প্রয়োজন ছিল! আর বিচারকদের অবস্থা এমন যে সংগীত শিল্পী অপেক্ষা কোরাস বা বাদ্যযন্ত্র ব্যবহারকারীদের প্রশংসা বেশি।

সারেগামাপাতে নোবেলের গাওয়া অনেকগুলো গান বেশ জনপ্রিয় হয়েছে। বিচারকদের কাছ থেকেও ঢাকার ছেলে নোবেল বেশ ভালো ভালো মন্তব্য পেয়েছেন। তবে সম্প্রতি একটি পর্বে নোবেল সারেগামাপার মঞ্চে খুব ভালো গান পরিবেশন করেও এক নম্বর কম পেয়েছিলেন। ওই একটি নম্বর কম দেন শ্রীকান্ত আচার্য। যার কারণে দুই বাংলায়ই বেশ সমালোচনার মধ্যে পড়তে হয়েছে শ্রীকান্ত আচার্যকে। নোবেল সারেগামাপাতে তার গাওয়া জেমসের কালজয়ী ‘বাবা’ গানটির মাধ্যমেই সর্বপ্রথম জনপ্রিয়তা অর্জন করেন।

এ ছাড়া অনুপম রায়ের জনপ্রিয় গান ‘আমাকে আমার মতো থাকতে দাও’, কলকাতায় প্রতিষ্ঠিত বাংলা স্বাধীন রক সংগীত ব্যান্ড ‘মহীনের ঘোড়াগুলি’র জনপ্রিয় গান ‘আলোকবর্ষ দূরে’, নচিকেতার জনপ্রিয় গান ‘বৃদ্ধাশ্রম’ ছাড়াও জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের লেখা ‘কারার ঐ লৌহ কপাট’ গানও নোবেল সারেগামাপাতে গেয়ে বেশ জনপ্রিয়তা পান।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: