রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ওয়াসার পানির দাম বাড়ানোর প্রস্তাব, ক্ষুব্ধ নগরবাসী  » «   শহীদের সঙ্গে প্রেম ভাঙলো কার দোষে? মুখ খুললেন কারিনা  » «   বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা পেল সখীপুরের ২ হাজারের বেশি মানুষ  » «   সিরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের বড় অস্ত্রের চালান নিখোঁজ  » «   মহেশপুর সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে প্রবেশকালে আটক ৪  » «   হামলাকারীকে ক্ষমা করে দিলেন লন্ডনের সেই মুয়াজ্জিন  » «   ঋণখেলাপিদের অর্থ কোথায় যায়  » «   ভাষা দিবসে কলাগাছের শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা  » «   এক হাজার কোটি টাকা দিতে রাজি জিপি  » «   সেই জার্মান বন্দুকধারীর হিটলিস্টে বাংলাদেশিরা  » «   আরব আমিরাতে করোনাভাইরাসে বাংলাদেশি আক্রান্ত  » «   আগুনে ১০ ঘর পুড়ে ছাই  » «   ঈশ্বরদীতে বাস-মোটরসাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২  » «   চট্টগ্রামে ১৪ হাজার ইয়াবাসহ সেনাসদস্য আটক  » «   ভারতে দুই স্বর্ণখনির সন্ধান, মজুত ৩৩৫০ টন  » «  

উত্তরপ্রদেশে বাংলাদেশিদের শনাক্ত করে বিতাড়িত করার নির্দেশ



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ভারতের উত্তরপ্রদেশ থেকে বাংলাদেশি ও অন্যান্য বিদেশিকে শনাক্ত করে তাদের বিতাড়িত করতে রাজ্যটির পুলিশকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সেখানকার হিন্দুত্ববাদী যোগী আদিত্যনাথের সরকার নতুন এ নির্দেশনা দিয়েছে বলে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে।

এ উদ্যোগকে আসামের জাতীয় নাগরিকত্ব নিবন্ধনের (এনআরসি) উত্তরপ্রদেশের সংস্করণ হিসেবে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। জেলা পুলিশ প্রধানদের পাঠানো এক চিঠিতে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের মহাপরিচালক বলেন, রাজ্যের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তার জন্য এ অভিযান খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

নির্দেশনায় শীর্ষ পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, তাড়িয়ে দেয়ার এ উদ্যোগের সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে। জ্যেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তারা তা তদারকি করবেন। এমন একসময় রাজ্যটিতে এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে, যখন বিজেপিশাসিত আসামের নাগরিকত্ব নিবন্ধন নিয়ে তুমুল বিতর্ক চলছে। নাগরিকত্বের প্রমাণ দিতে না পারলে সেখানকার ১৯ লাখের বেশি লোককে রাষ্ট্রহীন হয়ে যেতে হবে।

জেলার উপকণ্ঠে বিভিন্ন পরিবহন কেন্দ্র ও গুচ্ছবস্তিতে চিরুনি অভিযান চালিয়ে সন্দেহভাজনদের কাগজপত্রের সত্যাসত্য যাচাই করতে উত্তরপ্রদেশের পুলিশকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।এ ছাড়া বিদেশিদের জাল নথি তৈরিতে সহায়তাকারী সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধেও অভিযান চালাতে পুলিশকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

বাংলাদেশি কিংবা অন্যান্য বিদেশিকে শনাক্ত করার পর তাদের আঙুলের ছাপ নিতে বলা হয়েছে। অবকাঠামো নির্মাণ কোম্পানিগুলোকে পুলিশ বলেছে, সব শ্রমিকদের পরিচয়ের প্রমাণ রাখা তাদের দায়িত্ব।গত মাসে আসামের জাতীয় নাগরিকত্ব নিবন্ধনের প্রশংসা করেছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিথ্যনাথ। প্রয়োজনে নিজ রাজ্যেও এমন উদ্যোগ নেয়ার কথা তিনি তখন জানিয়েছিলেন। তিনি বলেন, আসামে যেটা করা হচ্ছে, জাতীয় নিরাপত্তার জন্য তা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: