মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে দ্বিতীয় জনপ্রিয় ভাষা বাংলা  » «   ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে সাব-রেজিস্ট্রার আটক  » «   আর কোনো হায়েনার দল বাংলার বুকে চেপে বসতে পারবে না  » «   সিলেটে মুক্তিযুদ্ধের পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করলেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   ফের জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি সালমা ইসলাম এমপি  » «   বিয়ানীবাজারে ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আয়কর দিবস উপলক্ষে সিলেটে বর্ণাঢ্য র‌্যালি  » «   এবার শ্রীমঙ্গলে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন  » «   বেলজিয়ামে মসজিদে তালা দেওয়ায় বাংলাদেশিদের প্রতিবাদ  » «   পায়রা উড়িয়ে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সম্মেলন উদ্বোধন  » «   ভারতের অর্থনীতির দুরবস্থা, জিডিপি কমে সাড়ে ৪ শতাংশ  » «   পায়রা উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা  » «   লন্ডন ব্রিজে আবারও সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ২  » «   চীন থেকে মা-বাবার জন্য পেঁয়াজ নিয়ে এলেন মেয়ে  » «   রক্তে ভাসছে ইরাক, নিহত ৮২  » «  

ঈদের আগেই সরকারি ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষার ফল



নিউজ ডেস্ক:: রিট জটিলতার শঙ্কায় জনতা ও রূপালী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার, অফিসার ও ক্যাশ অফিসারে স্থগিত রাখা এক হাজার ৮০৫ পদকে বাইরে রেখে চূড়ান্ত ফল প্রকাশের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংকের তত্ত্বাবধানের পরিচালিত ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি সচিবালয় (বিএসসিএস)। ঈদের আগে, অর্থাৎ সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী ১২-১৩ আগস্টের মধ্যে পাঁচ হাজার ৫৬৭ পদের ফল প্রকাশ করবে তারা।

বিএসসিএস সূত্র জানায়, সব কিছু ঠিক থাকলে আগামী ঈদের আগেই ফল প্রকাশ করবে। প্রথমে সিনিয়র অফিসার, অফিসার ও সর্বশেষ ক্যাশ অফিসার পদের ফল প্রকাশ করবে। এরই মধ্যে এই তিনটি সার্কুলারের মৌখিক পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। আর স্থগিত বা বাইরে রাখা পদগুলোতে নিয়োগ দিতে নতুন করে পরীক্ষা নেওয়া হবে। নতুন আবেদন প্রয়োজন হবে না, আগের আবেদন থেকে পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন চাকরিপ্রত্যাশীরা।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে সার্কুলার প্রকাশিত হলেও আট ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে সমন্বিত সিনিয়র অফিসার, সাত ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে অফিসার ও চার ব্যাংক ক্যাশ অফিসারে সাত হাজার ৩৭২ পদের ফল প্রকাশ করতে পারেনি বিএসসিএস। যার মধ্যে জনতা ও রূপালী ব্যাংকের রিট জটিলতায় এক হাজার ৬১৫ পদকে বাইরে রেখে এই তিনটি সার্কুলারে পাঁচ হাজার ৭৫৭ পদের নিয়োগ কার্যক্রম শেষ হয়েছে। এখন শুধু ফল প্রকাশের অপেক্ষা।

সূত্র জানায়, সরকারি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের জনবলের বিশাল ঘাটতি রয়েছে; কিন্তু জনবল নিয়োগে ২০১৭ সালের সার্কুলার হলেও এখনো নিয়োগ সম্পন্ন হয়নি। ২০১৮ সালেও সার্কুলার প্রকাশিত হয়েছে কিন্তু পথিমধ্যে থমকে রয়েছে। ব্যাংক থেকে ২০১৯ সালে নিয়োগ দিতে ব্যাংকের চাহিদা পেলেও আগের নিয়োগ সম্পন্ন না হওয়ায় প্রকাশ করতে পারছে না বিএসসিএস।

ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি সচিবালয়ের এক কর্মকর্তা গতকাল রবিবার বলেন, ‘রিটের কারণে স্থগিত পদগুলোকে বাইরে রেখেই ফল প্রকাশ করতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। দ্রুত ফল প্রকাশ ও অন্যান্য নিয়োগ ত্বরান্বিত করতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যত দ্রুত সম্ভব ফল প্রকাশ করা হবে। এরই মধ্যে তিনটি সার্কুলারের ফল প্রকাশ করতে কাজ শুরু হয়েছে। আগামী ঈদের আগেই চাকরিপ্রত্যাশীদের একটি সুখবর দিতে চাই।’

সরকারি আটটি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে সমন্বিত সিনিয়র অফিসার, সাতটি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে অফিসার ও চারটি ব্যাংক ক্যাশ অফিসার পদে নিয়োগ দিতে ২০১৭ সার্কুলার হয়; কিন্তু নিয়োগ পরীক্ষার তিনটি ধাপ শেষেও ফল প্রকাশিত হয়নি। এই সার্কুলারের সিনিয়র অফিসার পদে এক হাজার ৬৬৩ পদের মৌখিক পরীক্ষা শেষ হয় চলতি বছরের ২৫ ফেব্রুয়ারি, সাত ব্যাংকের সমন্বিত অফিসার পদের ভাইভা শেষ হয় ২১ জানুয়ারি আর চার ব্যাংক ক্যাশ অফিসার পদের ভাইভা শেষ হয় এপ্রিল মাসে।

বিএসসিএস সূত্র জানায়, জনতা ও রূপালী ব্যাংকের আগের একটি নিয়োগের সূত্র ধরে চাকরিপ্রত্যাশীদের রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে উচ্চ আদালতের স্থগিতাদেশে এক হাজার ৮০৫টি পদ বাইরে রেখে মৌখিক পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে। চলতি বছর উচ্চ আদালতের রায় ব্যাংকের পক্ষে গেলে স্থগিত পদকে সমন্বয় করে ফল প্রকাশ করার উদ্যোগ নেওয়া হয়। কিন্তু এটি করা হলে নতুন করে চাকরিপ্রত্যাশীদের একটি অংশ রিট করতে পারে, এমন সম্ভাবনায় পদগুলোকে বাইরে রেখেই ফল প্রকাশ করবে। স্থগিত পদগুলো হচ্ছে রূপালী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসারের ২৮৩ ও অফিসারে ১৯০টি পদ, জনতা ব্যাংকের অফিসার ৬৯৯ ও ক্যাশ অফিসার পদ ৬৩৩টি।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: