মঙ্গলবার, ২০ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
শেখ হাসিনার ছাত্রলীগে জামায়াতি আঁচড়!  » «   অবশেষে ক্ষমা চাইলেন জাকির নায়েক  » «   অপরাধীদের শাস্তি দ্রুত নিশ্চিত না করায় ধর্ষণ বাড়ছে: হাইকোর্ট  » «   সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে ‘স্পিড গান’  » «   কমলাপুর রেলওভার ব্রিজের ত্রুটির চিত্র তুলে ধরলেন ব্যারিস্টার সুমন  » «   জিন্দাবাজারে মিললো ২টি গোখরাসহ ৬ বিষধর সাপ  » «   কাশ্মীর ইস্যুতে আলোচনায় বসছেন ট্রাম্প- মোদী!  » «   মাত্র ১০০ মিটার দূরেই শত্রু  » «   অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে থাকবে সরকার: কাদের  » «   থানায় ‘গণধর্ষণের’ শিকার সেই নারীর জামিন নামঞ্জুর  » «   মিন্নির স্বীকারোক্তির আগে নাকি পরে এসপির ব্রিফিং : হাইকোর্ট  » «   প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের দুপুরের খাবারে মন্ত্রিসভার সায়  » «   নবম ওয়েজবোর্ডের গেজেট প্রকাশ নিয়ে আপিল বিভাগের সিদ্ধান্ত মঙ্গলবার  » «   পাঁচভাই রেস্টুরেন্টে প্রবাসীর ওপর হামলা: দুই ছাত্রলীগ কর্মী গ্রেপ্তার  » «   সিলেটসহ রেলের পূর্বাঞ্চলের নিরাপত্তা নিশ্চিতে হাইকোর্টের রুল  » «  

ইয়াসমিনের বেলায় প্রধানমন্ত্রী রাস্তায় নেমেছিলেন, তনু হত্যায় কেন নয়?



301নিউজ ডেস্ক :: ‘১৯৯৪ সালে দিনাজপুরে কিশোরী ইয়াসমিন ধর্ষণের করে হত্যার ঘটনার বিচারের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাস্তায় নেমেছিলেন। তিনিতো এখন ক্ষমতায়, তাহলে কেন তনু হত্যার বিচার করছেন না? কেন তনু হত্যা নিয়ে একের পর এক নাটক মঞ্চায়ন হচ্ছে?’
মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘সুশাসনের জন্য নারী’ সংগঠনের আয়োজনে মানববন্ধনে এসব প্রশ্ন রাখেন ড. দিলারা চৌধুরী।
তনুর পোস্টমর্টেম নিয়ে ডাক্তারদের অপেশাদারিত্বের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘একবার বলেন আঘাতের চিহ্ন নেই, ১০ দিন পর বলছেন ধর্ষণের আলামত নেই। কিভাবে তনুর মৃত্যু হল সেটা যদি আপনারা না-ই বলতে পারেন, তাহলে কিসের ডাক্তার আপনারা? কে আপনাদের সার্টিফিকেট দিয়েছে ডাক্তারি করার? মৃত্যুর কারণ যদি বের করতে না পারেন তাহলে দায়িত্ব ছেড়ে দেন।’ এখন কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠির স্বার্থসিদ্ধির জন্য এসব পোস্টমর্টেমের আখ্যান রচনা হচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন।
মানববন্ধনে সভাপতির বক্তব্যে আমানুল্লাহ রুবি বলেন, ‘একটার পর একটা ঘটনা সরকার ঘটিয়ে যাচ্ছে। একটা ঘটনার মধ্যে আরেকটা ঘটনা। কোনো ঘটনারই সঠিক বিচার হচ্ছে না। ন্যায় বিচার বানচাল করতেই এসব করা হচ্ছে।’
তিনি বলেন, ‘জনগণকে বাইরে রেখে সরকার পুশিল আর প্রশাসন দিয়ে রাষ্ট্র ক্ষমতায় টিকে থাকতে চাইছে। প্রতিবাদ আন্দোলন করতে গেলে আমাদের টুঁটি চেপে ধরা হচ্ছে।’
আওয়ামী লীগের ব্যানার ছাড়া কেউ নিরাপদ নয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমরা কেউ নিরাপদ না। যারা আওয়ামী লীগের ব্যানার নিয়ে দাঁড়াবে শুধু তারাই নিরাপদ। সাধারণ জনগণের কোনো নিরাপত্তা নেই। ইয়াসমিন, শাহানাদের মতো তনুরাও বিচার পাবে না। এদেশে বিচারহীনতার সংস্কৃতি বহাল রাখছে সরকার।’
নাজমুন নাহার নামে এক পেশাজীবী নারী বলেন, ‘কর্মক্ষেত্রে, গৃহে, স্কুলে, কলেজে, বিশ্ববিদ্যালয়ে, বাইরে কোথাও আমরা নিরাপদ নই। আমার মেয়েকে স্কুলে পাঠিয়ে আমি দুঃশ্চিন্তায় থাকি। অফিসে কাজে মনোযোগ দিতে পারি না। সারাক্ষণ ছটফট করতে থাকি। মেয়েকে নিয়ে এতটাই দুঃশ্চিন্তায় থাকতে হয় কোনো কাজেই মনোনিবেশ করা সম্ভব হয় না। আমরা নিরাপত্তা চাই। জীবনের নিরাপত্তা, সম্ভ্রমের নিরাপত্তা, বেঁচে থাকার নিরাপত্তা।’
মানববন্ধনে বক্তরা প্রয়োজনের আইন পরিবতর্ন করে তনু হত্যাসহ সকল হত্যা ধর্ষণের বিচার নিশ্চিত করতে সরকারের প্রতি অনুরোধ জানা। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীসহ সংগঠনটির জেনারেল সেক্রেটারি শিউলি করিম, সদস্য ইকরাম কবির উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: