মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
নতুন সড়ক পরিবহন আইন কার্যকরের ‘বিরোধিতায়’ ১১ জেলায় বাস চালানো বন্ধ  » «   নগরীতে ৪৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে পিয়াজ, ক্রেতাদের দীর্ঘ লাইন  » «   বলিভিয়ার অশান্তির নেপথ্যে ‘সাদা সোনা’, যা পরবর্তী বিশ্বের আকাঙ্ক্ষিত বস্তু  » «   আবরার হত্যা: পলাতক চারজনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি  » «   ‘অপকর্মে’ সংকুচিত দ. কোরিয়ার শ্রমবাজার  » «   ৩০০ টাকার পিয়াজ সরকারের দিনবদলের সনদ: ডাকসু ভিপি নুর  » «   অযোধ্যা রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন করছে মুসলিমরা  » «   ভাঙছে শরিক দল সঙ্কটে ঐক্যফ্রন্ট  » «   হলি আর্টিসান হামলা: রায় ২৭ নভেম্বর  » «   চাকা ফেটেছে নভোএয়ারের, ভাগ্যগুণে বেঁচে গেলেন ৩৩ যাত্রী  » «   হাত-পা ছাড়াই মুখে ভর করে লিখে পিইসি দিচ্ছে লিতুন  » «   প্রধানমন্ত্রীকে দেয়া বিএনপির চিঠিতে আবরার হত্যার বর্ণনা  » «   ১৫০ যাত্রী নিয়ে মাঝ আকাশে বিপাকে ভারতীয় বিমান, রক্ষা করল পাকিস্তান  » «   বিমান ছাড়াও ট্রেন, ট্রাক, বাসে করে আসছে পেঁয়াজ: সিলেটে পরিকল্পনামন্ত্রী  » «   চুক্তির তথ্য জানতে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিল বিএনপি  » «  

ইসলামের বিজয়: হেফাজত



138618_1নিউজ ডেস্ক: রাষ্ট্রধর্ম হিসেবে ইসলাম বাতিল চেয়ে করা রিট আবেদন খারিজ হওয়াকে ইসলাম ধর্মের বিজয় বলে আখ্যা দিয়েছে কওমী মাদ্রাসা ভিত্তিক সংগঠন হেফাজতে ইসলাম।
সোমবার বিচারপতি নাইমা হায়দারের নেতৃত্বে হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চ রিটটি রুলসহ খারিজ করে দেন।
আদালতের এই রায়ের পর এক সুপ্রিম কোর্ট অঙ্গনে এক প্রতিক্রিয়ায় একথা বলেন হেফাজতের ঢাকা মহানগরের যুগ্ম আহ্বায়ক ফজলুল করিম কাশেমী।
রাষ্ট্রধর্ম ইসলামের বিরুদ্ধে রিটের প্রতিবাদে আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়ে আসছিল মতিঝিলের শাপলা চত্বরে ২০১৩ সালের মে মাসে সমাবেশ থেকে বিতাড়িত হওয়ার পর কার্যত ঝিমিয়ে পড়া অরাজনৈতিক সংগঠন হেফাজতে ইসলাম।
কাশেমী বলেন, ‘বাংলাদেশের ৯৮ শতাংশ লোক ইসলাম ধর্মের অনুসারী। এমন দেশে ইসলামকে রাষ্ট্রধর্ম না রাখা অবাঞ্চনীয়। কোনো অপশক্তি পারবে না ইসলামকে প্রতিহত করতে।’
‘আদালত ন্যায়বিচার করেছেন। আদালত মুসলমানদের ধর্মের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে রিট খারিজের যে রায় দিয়েছেন, এতে আমাদের বাংলাদেশে রাষ্ট্রধর্ম হিসেবে ইসলাম ধর্মের বিজয় হয়েছে।’
কাশেমী বলেন, ‘আদালতের মাধ্যমে রাষ্ট্রধর্ম হিসেবে ইসলামকে সম্মান দেখানো হয়েছে। একইসঙ্গে মিডিয়া এবং সকল মুসলিমকে ধন্যবাদ যারা এই আন্দোলনে আমাদের সঙ্গে ছিলেন।’
তবে এই রায়ের পর সব ধর্মের লোক মিলেমিশে থাকবে এমন প্রত্যাশাও করেছেন ফজলুল করিম কাশেমী।
তিনি বলেন, ‘আজকের রায়ের পর পূর্বের মতো সকল অহিংস পথ পরিহার করে আমরা সামাজিক ও পারিবারিকভাবে সব ধর্মের লোক মিলেমিশে বসবাস করবো বলে প্রত্যাশা করছি।’

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: