বুধবার, ১৫ অগাস্ট ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩১ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
১৫ আগস্ট কেন ভারতের স্বাধীনতা দিবস?  » «   খালেদার জন্মদিনে ফখরুল‘প্রাণ বাজি রেখে লড়াই করতে হবে’  » «   রাজধানীতে নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে ২ শ্রমিকের মৃত্যু  » «   ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে দীর্ঘ যানজট  » «   ঢাকায় ইলিশের কেজি মাত্র ৪০০ টাকা!  » «   অস্ট্রেলিয়ান সিনেটে প্রথম মুসলিম নারী  » «   প্রধানমন্ত্রী নয়, ইসির নির্দেশনায় চলবে প্রশাসন : নাসিম  » «   সৌদি আরবে আরও ৫ বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু  » «   মৃত পুরুষকে বিয়ে করলেন নারী, এরপর…  » «   যা করবেন সন্তানকে বুদ্ধিমান ও চটপটে বানাতে  » «   নিউইয়র্কে লাঞ্ছিত ইমরান এইচ সরকার  » «   কুরবানির গোশত অন্য ধর্মাবলম্বীকে দেওয়া যাবে?  » «   শাহরুখের গাড়ি-বাড়ি ও ঘড়ির দাম এত?  » «   ভ্যান চালিয়ে প্রধানমন্ত্রীর নামে জমি, এরপর…  » «   মোবাইল ফোনে নতুন কলচার্জ নিয়ে যা বলছেন গ্রাহকরা  » «  

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের টাকায় মন্ত্রীপুত্রের নামে হাসপাতাল



IF-Foundation20160901170012নিউজ ডেস্ক::ইসলামিক ফাউন্ডেশনের টাকায় ধর্মমন্ত্রী মতিউর রহমানের ছেলের নামে হাসপাতাল নির্মাণ করা হচ্ছে। ময়মনসিংহ সদর উপজেলার সিরতা গ্রামে এই হাসপাতাল নির্মাণের নীতিগত সিদ্ধান্ত ইতোমধ্যে অনুমোদিত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত ধর্ম মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ২১তম বৈঠকের কার্যপত্র থেকে এ তথ্য জানা গেছে।
বৈঠক সূত্র জানায়, ধর্মমন্ত্রীর ছেলে মরহুম ডা. মো. মুশফিকুর রহমান শুভ মেমোরিয়াল ইসলামিক মিশন হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার জন্য ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বোর্ড অব গভর্নসের ১৯৭তম সভায় এই অনুমোদন দেয়া হয়। এই ‘বোর্ড অব গভর্নসের পদাধিকার বলে সভাপতি ধর্মমন্ত্রী নিজেই।
জানা গেছে, মন্ত্রীর চাপে কমিটি এই অনুমোদন দিতে বাধ্য হয়েছে। বৈঠকের কার্যপত্র থেকে জানা যায়, বৈঠকে কমিটির সদস্য সৈয়দ মুজিবুল বশর মাইজভান্ডারি বলেন, ধর্মমন্ত্রী তার প্রয়াত ছেলে ডা. মো. মুশফিকুর রহমানের নামে হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন, যা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে করা হচ্ছে।
এ সময় তিনি এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের প্রস্তাব করলে সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতিসহ উপস্থিত সদস্যরা সর্বসম্মতিক্রমে তাতে একমত পোষণ করেন। তারা অফিশিয়ালি ইসলামিক ফাউন্ডেশনকে দিক নির্দেশনামূলক একটি পত্র দেয়ার জন্য অবহিত করেন।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে কমিটির সদস্য বজলুল হক হারুন এমপি বলেন, বিষয়টি মানবিক দিক থেকে বিবেচনা করে সংসদীয় কমিটি সিদ্ধান্ত দিয়েছিল। এরপর বোর্ড অব গভর্নস এর অনুমোদন দেয়।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে কমিটির এক সদস্য জানান, সরকারি অর্থ ব্যয়ে জাতীয় কোনো নেতার নামে হাসপাতাল করা যায়। কিন্তু এ ধরনের কাজ নীতিবিরুদ্ধ। তবুও কেউ কেউ চাপে পড়ে এ ধরনের সিদ্ধান্তে একমত হয়েছে।
এ বিষয়ে মন্ত্রীর মতামত জানার জন্য তাকে একাধিকবার ফোন দিলেও তিনি ধরেননি।
বজলুল হক হারুনের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য সাধন চন্দ্র মজুমদার, এ কে এম এ আউয়াল (সাইদুর রহমান), মো. মকবুল হোসেন, মোহাম্মদ আমির হোসেন এবং দিলারা বেগম অংশ নেন। জাগো নিউজ

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: