সোমবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে দ্বিতীয় জনপ্রিয় ভাষা বাংলা  » «   ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে সাব-রেজিস্ট্রার আটক  » «   আর কোনো হায়েনার দল বাংলার বুকে চেপে বসতে পারবে না  » «   সিলেটে মুক্তিযুদ্ধের পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করলেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   ফের জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি সালমা ইসলাম এমপি  » «   বিয়ানীবাজারে ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আয়কর দিবস উপলক্ষে সিলেটে বর্ণাঢ্য র‌্যালি  » «   এবার শ্রীমঙ্গলে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন  » «   বেলজিয়ামে মসজিদে তালা দেওয়ায় বাংলাদেশিদের প্রতিবাদ  » «   পায়রা উড়িয়ে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সম্মেলন উদ্বোধন  » «   ভারতের অর্থনীতির দুরবস্থা, জিডিপি কমে সাড়ে ৪ শতাংশ  » «   পায়রা উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা  » «   লন্ডন ব্রিজে আবারও সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ২  » «   চীন থেকে মা-বাবার জন্য পেঁয়াজ নিয়ে এলেন মেয়ে  » «   রক্তে ভাসছে ইরাক, নিহত ৮২  » «  

ইনজুরিতে রশিদ খান, ফাইনাল খেলতে পারবেন কি!



স্পোর্টস ডেস্ক:: ফাইনাল ম্যাচের আগে বড় ধরনের দুঃসংবাদের হাওয়া বইছে আফগান শিবিরে। ইনজুরিতে পড়েছেন দলের সেরা খেলোয়াড় ও অধিনায়ক রশিদ খান। শনিবার ত্রিদেশীয় সিরিজে বাংলাদেশের বিপক্ষে পা খুড়িয়েই ১৪ ও ১৬তম ওভারে বোলিং করতে দেখা গেছে রশিদ খানকে। ঠিকভাবে দৌড়ে এসে বল করতে পারছিলেন না তিনি। শুধু কাঁধ-কব্জির জোরে বল করছিলেন। যে কারণে এ দুই ওভারে তাকে শুধু গুগুলি-লেগস্পিন ডেলিভারী দিতে দেখা গেছে।দৌড়ে শক্তি নিতে না পারায় ভাণ্ডারের বাকি অস্ত্রগুলো ব্যবহার করতে পারেননি ঠিকমতো।

বাংলাদেশের ইনিংসের ৭.৫ ওভারে দলীয় ৩৯/২ রানের সময় মোহাম্মদ নবীর বলে কাট করে রানের জন্য দৌড় শুরু করেন মুশফিকুর রহিম। মিডউইকেটে ফিল্ডিং করা রশিদ খান বলের পেছনে পেছনে দৌড় দেন। কিছু দূর এগোনোর পর বাঁ পায়ের মাংশ পেশিতে টান লাগে তার।হাঁটতে না পেরে মাঠেই লুটিয়ে পড়েন আফগান এ অধিনায়ক। মিনিট কয়েক ব্যবধানে উঠে দাঁড়ালেও ব্যথা অনুভব করায় ফিজিওর সঙ্গে মাঠ ছাড়েন ছোট দেশের বড় তারকা রশিদ খান।

কিছু সময়ের ব্যবধানে ১২তম ওভার শুরুর আগেই ফের মাঠে নামেন তিনি।এরপরও চিন্তার মেঘ পিছু ছাড়েনি মোহাম্মদ নাবীদের। হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে পড়েছেন তিনি। ওই চোটে তার মঙ্গলবার মিরপুরে টি-২০ ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনাল খেলা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

শনিবার চোট আক্রান্ত হওয়ার পরও ফের মাঠে নামায় অনেকেই অবাক হয়েছেন। এদিকে রশিদের চোট তেমন গুরুতর নয় বলে জানিয়েছেন আফগানিস্তান ক্রিকেট দলের ম্যানেজার নাজিম জার আব্দুল রহিম জাই। এ বিষয়ে আফগানিস্তান ক্রিকেট দলের ম্যানেজার নাজিম জার আব্দুল রহিম জাই বলেন, ইনজুরির পরও রশিদ মাঠে নেমে ভালো বল করেছে। ফাইনাল হতে আরও দুদিন বাকি। দেখি কী হয়। এর মধ্যেই তিনি সুস্থ হয়ে উঠবেন বলে আশা করছি আমরা।

তিনি আরও বলেন, রশিদ আমাদের দলের মূল খেলোয়াড়, আমাদের অধিনায়ক। আমরা তাকে আগামীকাল এবং তার পরের দিন পর্যন্ত পর্যবেক্ষণে রাখব। শনিবারের ম্যাচে ১২তম ওভারের সময় ইনজুরি থেকে ফিরে খুড়িয়ে ওভার করেও সাফল্যের দেখা পান রশিদ খান। মাহমুদুল্লাহকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলে সাজঘরে ফেরান। এরপর সিরিজে বাংলাদেশ দলের উদীয়মান ব্যাটসম্যান আফিফকে বোল্ড করেন।

এভাবেই একতরফা জয়ের দিকে এগিয়ে বাংলাদেশকে বিপদে ফেলেন রশিদ খান। তবে পরে নিজের তৃতীয় ওভারে এসে অবশ্য বিফল হন রশিদ খান। টাইগার অধিনায়ক সাকিব ওই ওভারে একটি ছয় ও দুটি চার মেরে ফের ম্যাচ বের করে নেন।

আগামী মঙ্গলবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে ত্রিদেশীয় টি-২০ সিরিজের ফাইনালে আফগানিস্তানের বিপক্ষে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: