মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৫ মাঘ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে দ্বিতীয় জনপ্রিয় ভাষা বাংলা  » «   ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে সাব-রেজিস্ট্রার আটক  » «   আর কোনো হায়েনার দল বাংলার বুকে চেপে বসতে পারবে না  » «   সিলেটে মুক্তিযুদ্ধের পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করলেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   ফের জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি সালমা ইসলাম এমপি  » «   বিয়ানীবাজারে ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আয়কর দিবস উপলক্ষে সিলেটে বর্ণাঢ্য র‌্যালি  » «   এবার শ্রীমঙ্গলে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন  » «   বেলজিয়ামে মসজিদে তালা দেওয়ায় বাংলাদেশিদের প্রতিবাদ  » «   পায়রা উড়িয়ে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সম্মেলন উদ্বোধন  » «   ভারতের অর্থনীতির দুরবস্থা, জিডিপি কমে সাড়ে ৪ শতাংশ  » «   পায়রা উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা  » «   লন্ডন ব্রিজে আবারও সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ২  » «   চীন থেকে মা-বাবার জন্য পেঁয়াজ নিয়ে এলেন মেয়ে  » «   রক্তে ভাসছে ইরাক, নিহত ৮২  » «  

ইতালির নাগরিকত্ব হারাতে পারেন ৩ হাজার বাংলাদেশি



প্রবাস ডেস্ক:: ইতালিতে দ্রুত নাগরিকত্ব পেতে জন্মসনদ, পুলিশ ক্লিয়ারেন্সে ভুয়া সিল এবং অনুবাদ ভুয়াসহ অন্যান্য অনিয়মের দায়ে ইতালির (নাগরিকত্ব) পাসপোর্ট হারাতে পারেন দুই হাজার আটশ বাংলাদেশি। ইতোমধ্যে ইতালির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জালিয়াতির সাথে জড়িত বাংলাদেশিদের ব্যাপারে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নিয়েছে এবং এর ব্যাখ্যা চেয়ে চিঠি দিয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রায় তিন হাজার বাংলাদেশি নির্দিষ্ট সময়ের আগে অর্থের বিনিময়সহ বিভিন্ন অনিয়ম করে দ্রুত ইতালির নাগরিকত্ব (পাসপোর্ট) লাভ করেন। এর মধ্যে একটি তদন্তে বাংলাদেশের জন্মসনদ ও পুলিশ ক্লিয়ারেন্স ভুয়া সার্টিফিকেটের সত্যতা পাওয়া গেছে।

চার বছর পূর্বে এই তদন্ত শুরু হয় পরে এর সত্যতা নিশ্চিত হলে চলতি বছর এর কার্যক্রমের ব্যবস্থা নেয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। ইতালির রাষ্ট্রপ্রতি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তথ্যের ভিত্তিতে যে সব বাংলাদেশি পাসপোর্ট জমা দেওয়ার ২৪ মাসের পূর্বে ইতালিয়ান পাসপোর্ট (নাগরিকত্ব) গ্রহণ করেন তাদের বিরুদ্ধে কঠিন ব্যবস্থা নিয়েছেন। অনিয়মের কারণ সঠিকভাবে ব্যাখা দিতে না পারলে নাগরিকত্ব ফেরত নেবে ইতালীয় সরকার।

এ প্রসঙ্গে সাবেক বাংলাদেশ সমিতির সভাপতি নুরে আলম সিদ্দিকী বাচ্চু জানান, দীর্ঘ পাঁচ বছর তদন্তের পর জন্মসনদ ও পুলিশ ক্লিয়ারেন্সে ভুয়া সিল দেয়ার প্রমাণ মিলেছে। যেসব বাংলাদেশি সংশ্লিষ্ট কাজের সাথে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছেন রাষ্ট্রপতি।

তিনি জানান, প্রায় ২ হাজার ভুয়া কাগজপত্র এবং এবং ৮০০ অর্থের বিনিময়ে দ্রুত পাসপোর্ট নেওয়ার প্রমাণ পেয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বাংলাদেশিদের এ নাগরিকত্বের ভুয়া কাগজপত্রের ব্যাপারে একটি মামলা করেন, যার মামলা নং ৪৩৮৯৮।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: