মঙ্গলবার, ২ জুন ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Sex Cams
সর্বশেষ সংবাদ
পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «   ফ্রান্সে টানা চতুর্থদিন মৃত্যুর রেকর্ড, ৪ হাজার ছাড়াল প্রাণহানি  » «   সিঙ্গাপুরে আরও ১০ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত  » «   মিশিগানের হাসপাতালে আর রোগী রাখার জায়গা নেই  » «   ৩ হাসপাতাল ঘুরে চিকিৎসা না পেয়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু  » «  

ইতালিতে অবাধ যৌনতা রুখতে রাস্তায় স্বল্পবসনা কাউন্সিলর!



dress-italyঅনলাইন ডেস্ক:: অবৈধ দেহ ব্যবসায় লাগাম টানতে পথে নামলেন ইতালির এক শহরের মেয়র ও কাউন্সিলাররা। অপরাধীদের হাতেনাতে ধরতে দেহ ব্যবসায়ী সেজে ফাঁদ পাতলেন দুই মহিলা কাউন্সিলর। অজান্তেই জালে ধরা পড়লেন একাধিক গাড়িচালক।

ইতালির নেপলস-এর কাছে ছোট্ট শহর কাস্তেল ভলতুর্নো। ছবির মতো ঝকঝকে জনপদে ইদানীং সমস্যা তৈরি করেছে অবাধ যৌন ব্যবসা। রাস্তা-ঘাটে যে কোনও সময় গাড়ি থামিয়ে গ্রাহক সংগ্রহে নেমেছেন দেহ ব্যবসায়ীরা। তাদের হাতছানিতে সাড়া দিচ্ছেন নাগরিকদের একাংশ। ইতালিতে এ ভাবে যৌন ব্যবসা চালানো সম্পূর্ণ বেআইনি। কিন্তু বার বার আবেদন জানানো এবং পুলিশের সাহায্যে আইন প্রণয়নের চেষ্টা করেও বিফল হয়েছে প্রশাসন। বাধ্য হয়ে নয়া কৌশল ফাঁদলেন শহরের মেয়র ও কাউন্সিলাররা।

ঠিক দেহপোজীবিনীদের মতো খাটো স্কার্ট, হাই হিল জুতো ও চড়া প্রসাধনে সজ্জিত দুই মহিলা কাউন্সিলার আনাস্তাসিয়া পেত্রেলা এবং স্তেফানিয়া সাঙ্গেরমানো ঘাঁটি গাড়লেন শহরের ব্যস্ত রাস্তার পাশে ফুটপাথে। চলন্ত গাড়ি দিকে ইঙ্গিতবাহী দেহভঙ্গি ও কটাক্ষ হেনে নজর কাড়ার খেলা চলল কিছুক্ষণ। খোলামেলা পোশাকের দুই নারীর ইশারায় পথের মাঝে দাঁড়িয়ে পড়ল বেশ কয়েকটি গাড়ি। জানলার কাচ নামিয়ে এর পর ছদ্ম যৌন ব্যবসায়ীদের সঙ্গে দর কষাকষি শুরু করতেই এগিয়ে এলেন সৌম্যকান্তি এক ভদ্রলোক। সম্ভাব্য গ্রাহকের চোখের সামনে পুস্তিকা নাচিয়ে মেয়র দিমিত্রি রুসো জানিয়ে দিলেন, কাজটা মোটেই আইনসম্মত হচ্ছে না। মেয়র ও কাউন্সিলারদের উপস্থিতিতে স্বাভাবিক ভাবেই কোণঠাসা হয়ে পড়লেন আইন ভঙ্গকারীরা।

অনেকে আবার মেয়র ও তাঁর পিছনে পিছনে আসা আলোকচিত্রীকে আসতে দেখে বিপদ আঁচ করে দ্রুত গাড়ি চালিয়ে উধাও হয়ে যান। কিন্তু তাতেও রেহাই মেলেনি। কারণ ছবি দেখিয়ে পুলিশে তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে ফেলেছে কাস্তেল ভলতুর্নো পুরসভা।

মেয়র রুসো জানিয়েছেন, শহরে ক্রমে বেড়ে ওঠা অবৈধ যৌন ব্যবসা রুখতেই এই প্রয়াস। দেহ ব্যবসায়ী এবং তাঁদের গ্রাহকদের জোরালো বার্তা দিতেই এই উদ্যোগ নেয় পৌরসভা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: