শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ ফাল্গুন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
দুই ঘণ্টার জন্য বিমান আটকে দিলো মশা  » «   বিয়ের নামে চীনে বিক্রি হচ্ছে পাহাড়ি মেয়েরা  » «   ডেকে নিয়ে যুবকের গলাকেটে হত্যা  » «   বড়লেখার মেধাবী তোফায়েলের চ্যান্সেলর স্বর্ণপদক লাভ  » «   পুলিশ পরিচয়ে কিশোরীকে যুবলীগ নেতার ধর্ষণ  » «   সিলেটে হবে ভারতীয় হাইকমিশন অফিস  » «   এ বছরেই আরো ১০ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ  » «   মাত্র ৬ বছরেই ‘ভয়ঙ্কর পৃথীবি’ দেখে গেল নীলিমা!  » «   যেভাবে করবেন আলিঙ্গন!  » «   ‘আপুকে এভাবে মেরে ফেলবে, ভাবতে পারিনি’  » «   আন্দোলন করে খালেদাকে মুক্ত করা যাবে না : হানিফ  » «   ‘নির্বাচন ঠেকাবার ক্ষমতা কারো নাই’  » «   কুমিল্লায় পিস্তল ও গুলিসহ দুই শীর্ষ সন্ত্রাসী আটক  » «   ‘রোববার মুক্তি পাবেন খালেদা’  » «   রাবি ছাত্রী হলে শর্টসার্কিট: আহত ৬  » «  

আমি এ বিচার মানি না: ফেলানীর বাবা



4. felani babaনিউজ ডেস্ক::
বৃহস্পতিবার রাতে পুনরায় বিএসএফ সদস্য অমীয় ঘোষকে বেকসুর খালাস দিয়ে রায় ঘোষণা করা হয়। এদিকে এ রায় শুনে উচ্চ আদালতে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ফেলানীর বাবা নুরুল ইসলাম। এ বিচারকে তিনি মানেন না বলেও জানিয়েছন।

রায়ের প্রতিক্রিয়ায় আজ সকালে ফেলানীর বাবা নুরুল ইসলাম চরম হতাশা প্রকাশ করেছেন। তিনি জানান, অনেক আশা করেছিলাম ঐ খুনি অমীয় ঘোষের এবার মারাত্নক শাস্তি হবে কিন্তু তা হয়নি। তিনি তার মেয়ে হত্যার এ রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চতর আদালতে যাবেন বলে জানান।

তিনি জানান, এ বিচার আমি মানি না। এ মামলার পক্ষের সহায়তাকারী আইনজীবী আব্রাহাম লিংকন পিপি জানান, এ রায় অত্যন্ত নিন্দনীয় একটি রায় যা পূর্ব থেকে একপেশে হবে বলে বোঝা যাচ্ছিল।

কারণ আত্মস্বীকৃত খুনি অমীয় ঘোষকে এভাবে বিএসএফ এর আদালতে পূর্বের রায় বহাল রেখে দোষী একজন ব্যক্তিকে প্রশ্রয় দিয়েছে। এটি বিএসএফ এর মত একটি রাষ্ট্রীয় ফোর্সের নিজেদের ঘাড়েই তা বর্তায় বলে তিনি মন্তব্য করেন।

এদিকে, কুড়িগ্রাম ৪৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের পরিচালক লে. কর্ণেল মোঃ জাকির হোসেন জানান, ভারতের ৪২-বিএসএফ এর কমান্ড্যান্ট ভিপি বাদলার সাথে যোগাযোগ করে তিনি তার প্রতিক্রিয়া জানাবেন।

উল্লেখ্য, গত ২০১১ সালের ৭ জানুয়ারি কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার অনন্তপুর সীমান্তে কাটাতারের বেড়া পার হওয়ার সময় বিএসএফ সদস্য অমিয় ঘোষের গুলিতে নির্মমভাবে নিহত হয় ১৪ বছর বয়সী বাংলাদেশি কিশোরী ফেলানী খাতুন।

এ হত্যাকাণ্ড দেশ-বিদেশের গণমাধ্যমসহ মনবাধিকার কর্মীদের মাঝে সমালোচনার ঝড় উঠলে কয়েক দফা বিচারের কার্যক্রম চলে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: