রবিবার, ২৪ জুন ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
নেতাদের শাসালেন শেখ হাসিনা  » «   যমুনা নদীতে বিলীন হচ্ছে বসত বাড়ি, দেখার কেউ নেই!  » «   নতুন চলচ্চিত্রের জন্য ইরানে অনন্ত  » «   নেইমারের জার্সি গায়ে অপু ও জয়  » «   সিসিক নির্বাচন: আ.লীগ মেয়র প্রার্থী হলেন কামরান  » «   বাসায় ঢুকে অভিনেত্রীকে শ্লীলতাহানি!  » «   আর্জেন্টিনার হার, বেরিয়ে এলো বিস্ফোরক তথ্য!  » «   দুর্ঘটনা সড়কে মৃত্যুর মিছিল, নিহত ৩০, আহত ৪৭  » «   ‘নির্বাচনে জয়ী হতে গিয়ে যেন দলের বদনাম না হয়’  » «   হাসপাতালে পরীমনি  » «   আর্জেন্টিনার হার, ‘সুইসাইড নোট’ লিখে নিখোঁজ মেসি ভক্ত  » «   সাপাহারে ট্রাক ও ভ্যানের মুখো-মুখি সংঘর্ষে নিহত-২  » «   দুর্ঘটনার দিন ঢাকাতেই ছিলাম না’  » «   ভক্তদের হতাশ করেনি ব্রাজিল : অতিরিক্ত সময়ই বিশ্বকাপে টিকিয়ে রাখল নেইমারদের  » «   হাসপাতালের এক্সরে রুমে রোগীর মাকে ধর্ষণের চেষ্টা!  » «  

আদিবাসী নারীকে দিনের পর দিন ধর্ষণ



নিউজ ডেস্ক::রাজশাহীতে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে আদিবাসী এক নারীকে দিনের পর দিন ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় সুজন আলী (২৪) নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। প্রতারক সুজন উপজেলার খানপুর গ্রামের আফসার আলীর ছেলে। শনিবার গভীর রাতে সুজনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা দায়ের করেছেন উপজেলার পিয়ারপুর গ্রামের ২৩ বছর বয়সী প্রতারণার শিকার ওই নারী।

মামলার এজাহারে এক সন্তানের জননী ওই আদিবাসী নারী দাবি করেছেন, প্রায় দুই বছর ধরে সুজনের সঙ্গে তার পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। বিয়ের প্রলোভন দিয়ে সুজন তার সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্কও গড়ে তুলেছিলেন। শনিবার রাতেও সুজন তার বাড়ি গিয়েছিলেন। কিন্তু বিয়ের কথা বলতেই তালবাহানা শুরু করেন সুজন। তখন এলাকার লোকজন ডেকে তাকে আটকে রাখেন।

মোহনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম মাসুদ পারভেজ জানান, এলাকার লোকজনই পুলিশে খবর দেন। পরে তাদের দুজনকেই থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর ওই নারী মামলা করেন। রবিবার সকালে সুজনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। ওই নারীকেও ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: