বুধবার, ১৮ জুলাই ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
২৭ জুলাই খালেদার মুক্তি দাবিতে জাতিসংঘের সামনে বিক্ষোভ  » «   মৌসুমি বায়ু দুর্বল, বর্ষার বর্ষণ নেই  » «   সিলেটে দুর্ঘটনায় কলেজ ছাত্রের মৃত্যু  » «   হরিণাকুণ্ডুতে র‌্যাবের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাত সদস্য নিহত  » «   পুলিশের সোর্স মামুন মাদক ব্যবসায়ীর স্ত্রীকে নিয়ে উধাও  » «   ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা কিশোরি, সালিসে জরিমানার টাকা ভাগাভাগি!  » «   আইনমন্ত্রীর বাসায় প্রধানমন্ত্রী  » «   ‘এদেরকে নিয়েই মান্না সাহেব দুর্নীতির বিরুদ্ধে যুদ্ধ করিবেন’  » «   রাশিয়ায় বিশ্বকাপ দেখতে গিয়ে পুলিশের জালে বাংলাদেশী যুবক  » «   বিদেশ ও জেল থেকে আন্ডারওয়ার্ল্ড নিয়ন্ত্রণ করছে শীর্ষ সন্ত্রাসীরা  » «   বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন রাষ্ট্রদূত মনোনীত রবার্ট মিলার  » «   বেবী নাজনীন অসুস্থ, হাসপাতালে ভর্তি  » «   কোটা আন্দোলন: ছাত্রলীগের হুমকিতে ক্যাম্পাস ছাড়া চবি শিক্ষক  » «   ভেবেই ক্লাব বদল করেছেন রোনালদো  » «   ভারতে নিষিদ্ধ, অন্য দেশে পুরস্কৃত যেসব ছবি  » «  

‘আদর্শের জায়গা থেকে কবিতা ধারণ করতে হবে’



নিউজ ডেস্ক:: সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেছেন, কবিতা আমাদের বড় শক্তি, আদর্শের জায়গা থেকে একে ধারণ করতে হবে। তিনি বলেন, সব রকম অন্যায়-অত্যাচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদমুখর হতে কবিতাই আমাদের বড় অস্ত্র।
বৃহস্পতিবার সকালে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা মিলনায়তনে বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদ আয়োজিত ‘জাতীয় প্রায়োগিক কর্মশালা ও বার্ষিক সম্মেলন ২০১৭’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।
আবৃত্তি শিল্পীসহ সবাইকে শুদ্ধ উচ্চারণ ও নির্ভুল বানানের প্রতি মনোযোগী হওয়ার পরামর্শ দিয়ে সংস্কৃতি মন্ত্রী বলেন, ভুল উচ্চারণ যেমন কানে লাগে, ভুল বানানও তেমনি চোখে পড়ে। তাছাড়া কণ্ঠ ও উচ্চারণের বাইরে যেটি বেশি প্রয়োজন, সেটি হল কবিতার গভীরে প্রবেশ করা।
সুন্দরভাবে কবিতা উপস্থাপন ও আবেগে বিহবল হওয়াই কবিতার মুখ্য বিষয় নয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, বরং কবিতা আমাদের অনেক বেশি দায়িত্ব ও কর্তব্য কাঁধে নেয়ার কথা বলে। আর সেটি হলো সমাজ বিনির্মাণের কথা।
নাটক ও আবৃত্তি চর্চাকারীদের তথা সংস্কৃতিকর্মীদের প্রতি পাড়ায় প্রতি বিদ্যালয়ে গিয়ে নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের সংস্কৃতি চর্চায় উদ্বুদ্ধ ও অনুপ্রাণিত করার আহ্বান জানিয়ে নূর বলেন, বঙ্গবন্ধু যে স্বপ্ন নিয়ে বাংলাদেশ স্বাধীন করেছিলেন, এখন চলছে তা বাস্তবায়নের সংগ্রাম এবং তা অব্যাহত রাখতে হবে।
তিনি বলেন, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির যে ঊর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণের পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে তাতে সংস্কৃতিকর্মীদের আবাসনের সুবিধার্থে একটি ডরমিটরির ব্যবস্থা রাখা হবে।
বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আহকাম উল্যাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ, বাংলাদেশ পথনাটক পরিষদের সভাপতি মান্নান হীরা এবং বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ঝুনা চৌধুরী। কর্মশালায় সারাদেশের আবৃত্তি সংগঠনগুলো থেকে ছয় শতাধিক প্রশিক্ষাণার্থী অংশগ্রহণ করছে।
আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদ আয়োজিত তিন দিনব্যাপী জাতীয় প্রায়োগিক কর্মশালা এবং বার্ষিক সম্মেলন আজ থেকে শুরু হয়েছে। চলবে আগামী ২১ অক্টোবর পর্যন্ত। বাসস

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: