বৃহস্পতিবার, ২১ জুন ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ছাত্রীর সঙ্গে শিক্ষকের কুকীর্তি ফাঁস!  » «   মায়ের পছন্দ ব্রাজিল, সমর্থক জয়ও  » «   পুলিশ কমিশনার‘ঈদগাহে ছাতা ও জায়নামাজ ছাড়া অন্য কিছু নয়’  » «   ‘আমিও প্রেগনেন্ট হয়েছি, অনেকবার অ্যাবরশনও করিয়েছি’  » «   গুগল পেজ ইরর দেখায় কেন?  » «   রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, সিইসি কে কোথায় ঈদ করছেন  » «   ইসি সচিব : তিন সিটি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা  » «   বিপজ্জনক রূপ নিয়েছে মনু ও ধলাই  » «   বিশ্বকাপের একদিন আগে বরখাস্ত স্পেন কোচ!  » «   ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে ৭ কি.মি. যানজট  » «   শারীরিক সম্পর্ক নিয়ে আলিয়ার সোজা কথা!  » «   যে কারণে ইউনাইটেড হাসপাতালে যেতে চান খালেদা  » «   খালেদা চিকিৎসা চান নাকি রাজনীতি করছেন : সেতুমন্ত্রী  » «   যানজটের কথা শুনিনি, কেউ অভিযোগও করেননি  » «   ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান ‘বকশিসের নামে নীরব চাঁদাবাজি নেই’  » «  

আইসিটি এক্সপোতে যা থাকছে



তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক::দেশে হার্ডওয়্যার শিল্পকে রপ্তানিমুখী করতে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বআইসিসি) শুরু হয়েছে তথ্য প্রযুক্তির আসর বাংলাদেশ আইসিটি এক্সপো ২০১৭। মেক ইন বাংলাদেশ’ স্লোগানে আয়োজিত প্রদর্শনীটি বুধবার সকালে উদ্বোধন করেন পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

যৌথভাবে এই প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ এবং বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি। পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়ন অনেকটাই সম্পন্ন হয়েছে। এর সুফল পেতে হলে ডিজিটাল বাংলাদেশকে বাণিজ্যিকরণ করতে হবে।

আ হ ম মুস্তাফা কামাল বলেন, আগামী প্রজন্মের হাত ধরে আমরা আমাদের লক্ষে পৌঁছাতে পারবো। তাই তরুণদের তথ্যপ্রযুক্তি সমৃদ্ধ করতে হবে। এজন্য প্রয়োজন বিশেষায়িত শিক্ষক। আমাদের দেশে উপযুক্ত শিক্ষকের অভাব রয়েছে। প্রয়োজনে উন্নত দেশ থেকে শিক্ষক এনে তরুণদেরকে প্রশিক্ষণ দিতে হবে। অনুষ্ঠানের সভাপতি আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, এমপি বলেন, হার্ডওয়্যার খাতে সক্ষমতা বাড়াতে এই প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে।

আমাদের বিশ্বাস ২০২১ সালের মধ্যেই হার্ডওয়্যার রপ্তানি করবে বাংলাদেশ। দেশের হার্ডয়্যার খাতের বড় একটি অংশের বাজার দখল করে আছে ওয়ালটনের মতো খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠান। তাদের দেখাদেখি সামস্যাং, এলজিও দেশে প্লান্ট খুলতে বাধ্য হচ্ছে।হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম বলেন, আমরা এখন তথ্যপ্রযুক্তর যুগে বাস করছি।

প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তাবায়নে কাজ করছে আইসিটি ডিভিশনের আওয়তাধীন হাইটেক পার্ক কতৃর্পক্ষ। এই পার্কে বিনিয়োগের নতুন দ্বার সৃষ্টি হচ্ছে। বিসিএস সভাপতি আলী আশফাক বলেন, সরকারের সব আইসিটি পলিসি বাস্তবায়নে একযোগে কাজ করছে বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি। এরই অন্যতম উদাহরণ আজ থেকে শুরু হওয়া বাংলাদেশ আইসিটি এক্সপো ২০১৭।

এটি দেশের সর্ববৃহৎ আইসিটি প্রদর্শনী।আইসিটি সচিব সুবীর কিশোর চৌধুরী বলেন, দেশের তথ্যপ্রযুক্তি সম্প্রসারণে আইসিটি এক্সপোর মতো প্রদর্শনী বিশেষ ভূমিকা রাখে। ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন আর স্বপ্ন নয়।

এখন এটি বাস্তবে রূপ নিয়েছে।অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ইমরান আহমেদ এমপি, বেসিস সভাপতি মোস্তাফা জব্বার, বিসিএস-এর মহাসচিব ইঞ্জিনিয়ার সুব্রত সরকারসহ আইসিটি খাতের নেতারা।১৮ থেকে ২০ অক্টোবর প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত এই প্রদর্শনী সবার জন্য উন্মুক্ত। আসরটি বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের হল অব ফেম, সেলিব্রেটি, হারমনি, কার্নিভাল, মিল্কিওয়ে, মিডিয়া বাজার, উইন্ডি টাউনের বিস্তৃত এলাকাজুড়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

তিন দিনব্যাপী পুরো প্রদর্শনীকে লোকাল ম্যানুফ্যাকচারাস, আইওটি ও ক্লাউড, প্রোডাক্ট শোকেস, ইনোভেশন, মিট উইথ ইন্টারন্যাশনাল ম্যানুফ্যাকচারারস, ডিজিটাল লাইফস্টাইল, মেগা সেলস, সেমিনার, বিটুবি ম্যাচমেকিং ও হাই-টেক পার্কের মতো এ রকম ১০টি জোনে ভাগ করা হয়েছে। ১৩২টি প্যাভিলিয়ন ও স্টলে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রকল্প, কর্মসূচি এবং উদ্যোগগুলো উপস্থাপন করা হবে।এই আয়োজনে তিনটি সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছে। এতে অংশ নেবেন দেশ-বিদেশের তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: