রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে শিক্ষককে হত্যার হুমকি  » «   স্কুলের ঘন্টা বাজালেন রুহানি!  » «   উল্টো পথে প্রতিমন্ত্রীর গাড়ি: অর্ধশত যানবাহনকে জরিমানা  » «   বিএনপি কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা  » «   সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ: চেয়ারম্যানসহ আসামি ৭  » «   ‘আলোচনার মাধ্যমে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধান সম্ভব’  » «   রোহিঙ্গাদের গণধর্ষণের প্রমাণ পেয়েছে জাতিসংঘ  » «   অবশেষে রিয়ালের স্বস্তির জয়  » «   সিরিজ বাঁচিয়ে রাখতে চায় অস্ট্রেলিয়া  » «   বালাগঞ্জে গ্রাম আদালত বিষয়ক প্রশিক্ষন সম্পন্ন  » «   তখনও প্রসবকালীন রক্ত ঝরছে তার শরীর থেকে  » «   টাঙ্গাইলে চলছে ভোটগ্রহণ  » «   কিশোরী স্কুলছাত্রীদের যৌনদাসী বানিয়ে রাখেন কিম!  » «   বুদ্ধি কমিয়ে দিচ্ছে যে খাবার  » «   আইফোনের তুলনায় পাঁচ গুণ সস্তা টাইগাফোন  » «  

অস্ট্রেলিয়ার টিম বাসে ঢিল, তদন্তে যা বেরিয়ে এলো



স্পোর্টস ডেস্ক:: চট্টগ্রাম টেস্টে মাঠের খেলা ছাপিয়ে আলোচনায় অস্ট্রেলিয়ার টিম বাসে পাথর নিক্ষেপ। সোমবার প্রথম দিনের খেলা শেষে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম থেকে হোটেলে ফেরার পথে অজি টিম বাসে কে বা কারা পাথর ছোঁড়ে। ওই রাতেই অস্ট্রেলিয়ান গণমাধ্যমে এ খবর ফলাও করে প্রচার করা হয়। বিব্রতকর অবস্থায় পড়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। নড়চড়ে বসে নিরাপত্তা বিভাগ।
রাত পেরোতেই অনাকাঙ্ক্ষিত সেই ঘটনার তদন্তের ঘোষণা দেয় দেশের ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা বিসিবি। গঠন করা হয় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি। বিসিবির তদন্ত কমিটি কিছু না জানালেও পুলিশের তদন্তে জানা যায়, কোনো দুষ্কৃতকারী নয়, অজি টিম বাসের জানালার একটা অংশ ভেঙেছিল কোনো এক শিশুর অনিচ্ছাকৃত ছোঁড়া ঢিলে। এ সত্য ঘটনায় আশ্বস্ত হয়ে এখন নির্ভার অজি দল ও তাদের নিরাপত্তা বিভাগ।
পুলিশের তদন্তে যা বেরিয়ে এসেছে তা হলো, ওই দিন বিকালে বারো কোয়ার্টার মাঠে টেপ টেনিস বল দিয়ে ক্রিকেট খেলছিল নয় শিশু, যাদের বয়স ৭-৯ বছরের মধ্যে। শেষ দিকে খেলা নিয়ে গণ্ডগল বেধে যায় তাদের মধ্যে। শুরু হয় ঢিল ছোড়াছুড়ি। এরই একটি গিয়ে লাগে অস্ট্রেলিয়ার টিম বাসের জানালায়। পরবর্তীতে পুরো ঘটনাটা জানানো হয় অস্ট্রেলিয়ার টিম ম্যানেজমেন্টকে।
পুলিশ জানায়, বারো কোয়ার্টারে বড় একটা বস্তি আছে। শিশুগুলো ওই বস্তিতেই থাকে। রাতেই তাদের নিয়ে আসা হয় ডবলমুরিং থানায়। ঢিল ছোড়াছুড়ির কথা তারা স্বীকার করে। তবে ঠিক কার ঢিল অস্ট্রেলিয়ার টিম বাসে গিয়ে লেগেছে, তা বের করা যায়নি। সঙ্গত কারণে গ্রেফতার করা হয়নি শিশুদের। তবে বলামাত্র তাদের হাজির করা হবে- অভিভাবকদের কাছ থেকে এই মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয় ওই নয় শিশুকে।
পরদিন অর্থাৎ মঙ্গলবার সকাল আটটায় তাদের নিয়ে আসা হয় চট্টগ্রামে দুই দলের ঠিকানা র‍্যাডিসন ব্লু হোটেলে। পুলিশের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা অস্ট্রেলিয়া দলের নিরাপত্তা কর্মকর্তা ও টিম ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে বসে ঘটনা খুলে বলেন। ওই নয় শিশু তখন হোটেলের সামনে গাড়িতে বসে ছিল। পুলিশের প্রতিনিধিদল অস্ট্রেলিয়া দলের নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের বলেন, তারা চাইলে ওই শিশুদের সঙ্গে কথাও বলতে পারেন।
তবে পুলিশের ব্যাখ্যায় সন্তুষ্ট হয়ে অস্ট্রেলিয়ার নিরাপত্তা বিভাগ অবশ্য সেটা করেনি। পুরো ঘটনা বিশ্বাস করে নিয়ে স্বাভাবিক হয়েছেন সফরকারীরা। এমনিতে অস্ট্রেলিয়া দলকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তাই দিচ্ছে বিসিবি। এ ঘটনার পর টিম হোটেল, চলাচলের রাস্তা, স্টেডিয়াম ও স্টেডিয়ামের আশপাশে আরও জোরদার করা হয়েছে নিরাপত্তাব্যবস্থা। হোটেল থেকে মাঠে আসা–যাওয়ার রুটও বদলে ফেলা হয়েছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: