সোমবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে থাকবে সরকার: কাদের  » «   থানায় ‘গণধর্ষণের’ শিকার সেই নারীর জামিন নামঞ্জুর  » «   মিন্নির স্বীকারোক্তির আগে নাকি পরে এসপির ব্রিফিং : হাইকোর্ট  » «   প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের দুপুরের খাবারে মন্ত্রিসভার সায়  » «   নবম ওয়েজবোর্ডের গেজেট প্রকাশ নিয়ে আপিল বিভাগের সিদ্ধান্ত মঙ্গলবার  » «   পাঁচভাই রেস্টুরেন্টে প্রবাসীর ওপর হামলা: দুই ছাত্রলীগ কর্মী গ্রেপ্তার  » «   সিলেটসহ রেলের পূর্বাঞ্চলের নিরাপত্তা নিশ্চিতে হাইকোর্টের রুল  » «   বঙ্গবন্ধু হত্যায় জিয়া নয়, আ.লীগ নেতারা জড়িত : ফখরুল  » «   রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন: ‘শঙ্কা’ নিয়েই প্রস্তুত বাংলাদেশ  » «   সুনামগঞ্জে বিষপানে যুবকের আত্মহত্যা  » «   পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ইভিনিং প্রোগ্রামে জমজমাট শিক্ষা বাণিজ্য  » «   ১০ দিনে ১৭৫ কোটি ডলারের রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা  » «   আজ বাংলাদেশে আসছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী, গুরুত্ব পাবে তিস্তা চুক্তি  » «   হবিগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় পুলিশ কনস্টেবলের মৃত্যু  » «   খুলনা থেকে সিলেট পর্যন্ত জমি ভারতকে ছেড়ে দিতে হবে বাংলাদেশকে!  » «  

অভিনব প্রতিবাদ! ভোট দেয়নি গোটা গ্রাম



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ভোট আসে ভোট যায়। কিন্তু রাস্তা ঠিক হয় না। উন্নয়নের কোনো ছোঁয়া লাগে না এই গ্রামে। আর এই অভিযোগে রোববার ভোটদানে বিরত ছিলো উত্তরপ্রদেশের দোমারিয়াগঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রের সাংলাদ্বীপ গ্রামের ভোটাররা।

ভারতে লোকসভা নির্বাচনে রোববার ছিলো ষষ্ঠ দফার ভোট। ওই গ্রামের ভোটাররা ভোট দিতে না আসায় নির্বাচনী কর্মকর্তারা গ্রামের বাড়িতে বাড়িতে যান। ভোটারদের ভোট দিতে আসতে অনুরোধ করেন তারা। কিন্তু এতে কোনো কাজ হয়নি। নিজেদের সিদ্ধান্তে অনড় ছিলেন গ্রামের বাসিন্দারা।

স্থানীয় প্রাথমিক স্কুলে ভোট নেওয়ার কথা ছিল। সে মতো নির্বাচনী কর্মকর্তা এবং পুলিশকর্মীরা সেখানে হাজির হয়ে গিয়েছিলেন। কিন্তু যাদের জন্য এত আয়োজন সেই ভোটাররাই এলেন না। ওই গ্রামে প্রায় সাড়ে পাঁচশ ভোটার রয়েছেন। রাস্তা না হওয়ায় প্রতিবাদে তারা কেউই রোববার ভোটকেন্দ্রে আসেননি।

গ্রামবাসীদের অভিযোগ, এর আগেও তারা বহুবার রাস্তা ঠিক করার জন্য সোচ্চার হয়েছিলেন। ভোটের মুখে প্রতিশ্রুতিও দিয়েছিলেন নেতারা। কিন্তু ভোটের পর তাদের নাগাল পাওয়া যায়নি। রাস্তাও ঠিক হয়নি। তাই এবার ভোটই দিলেন না সাংলাদ্বীপ গ্রামের ভোটাররা।

কেবল ভাঙা রাস্তা নয়, গ্রামবাসীরা আরো অনেক সমস্যা মোকাবেলা করছেন। প্রতি বছর বর্ষায় ভেসে যায় গোটা গ্রাম। পাশের নদী উপচে ঢোকে গ্রামে। গোটা গ্রাম তখন যেন পৃথিবী থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া একটা দ্বীপ। পাকা রাস্তা না থাকায় সকলকে ভেতরেই থাকতে হয়। কেউ বাইরে যেতে পারেন না। বাইরে থেকেও কেউ আসতে পারেন না গ্রামে। কিন্তু প্রশাসনের যেন কোনো মাথা ব্যাথা নেই। তাই তাদের কোনো উদ্যোগ চোখে পড়ে না।

এ নিয়ে এক গ্রামবাসীর বক্তব্য, ‘আমরা ২০২২ সালের বিধানসভা নির্বাচনে ভোট দিলে দিতেও পারি। কিন্তু এবার দেব না।’

তবে তাদের ভোটকেন্দ্রে আনার জন্য শেষ পর্যন্ত চেষ্টা চালিয়ে গিয়েছেন কমিশনের কর্মকর্তারা। স্থানীয় অ্যাসিস্ট্যান্ট রিটার্নিং অফিসার উমেশচন্দ্র নিগম বলেছেন, ‘আমরা বারবার গ্রামবাসীদের ভোট দিতে আসতে অনুরোধ করেছি। কিন্তু তারা এতে রাজি হননি।’

লোকসভা নির্বাচনে ষষ্ঠ দফায় উত্তরপ্রদেশের ১৪টি আসনে ভোট হয়েছে। গতবার এই ১৪টির মধ্যে ১৩টিতে জিতেছিল বিজেপি। দেশের সবচেয়ে বড় রাজ্য উত্তরপ্রদেশে আর ১৩টি আসনে ভোট বাকি রয়েছে। আগামী রোববার শেষ দফায় ওই আসনগুলোতে ভোট হবে।

সূত্র: এনডিটিভি

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: