বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
তরুণ ও যুবকদের জন্য যে চমক আ. লীগ-বিএনপির ইশতেহারে  » «   নারায়ণগঞ্জে গ্যাসের আগুনে একই পরিবারের ৯ জন দগ্ধ  » «   আমার কিছু হলে দায়ী আপনারা মামা-ভাগ্নে: সিইসিকে গোলাম মাওলা রনি  » «   ভুলভ্রান্তি হলে ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন: শেখ হাসিনা  » «   মাহবুব তালুকদারের বক্তব্য অসত্য: সিইসি  » «   ভোটের ফলাফল প্রকাশে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বনের নির্দেশ  » «   ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় মইনুলের জামিন  » «   বাংলাদেশের বিজয় দিবসকে অবজ্ঞা শেহবাগের!  » «   সারাদেশে ১ হাজার ১৬ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন  » «   প্রার্থিতা নিয়ে রিট খারিজ, নির্বাচন করতে পারবেন না খালেদা জিয়া  » «   জামায়াতের ২২ প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিলে রুল  » «   সিলেটে প্রাধান্য উন্নয়ন ও গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার  » «   বিএনপির ইশতেহার ঘোষণা করছেন ফখরুল  » «   আপিলেও ভোটের পথ খুলল না ইলিয়াসপত্নী লুনার  » «   যেসব ‘বিশেষ’ অঙ্গীকার থাকছে আ. লীগের নির্বাচনি ইশতেহারে  » «  

অবৈধ শারীরিক সম্পর্ক অবস্থায় শিক্ষিকা স্ত্রীকে পুলিশে দিলেন স্বামী!



খুলনা প্রতিনিধি: অসামাজিক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত থাকার অভিযোগে খুলনায় শিক্ষা কর্মকর্তা ও শিক্ষিকাকে আটক করা হয়েছে। আটকরা হলেন- সদর থানা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা (প্রাথমিক) অসীত কুমার বর্মন ও মহানগরের পশ্চিম টুটপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা নুসরাত জাহান পলি।

পলির স্বামী মিজানুর রহমান গত বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকার উদ্দেশ্যে বাসা থেকে বের হয়ে কিছু রেখে যাওয়ায় ফের বাসায় ফেরত এসে অসীত ও পলিকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পান। শহরের দক্ষিণ টুটপাড়াস্থ দিলখোলা রোড এলাকার বাসা থেকে পরে এলাকাবাসীর সহায়তায় পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে।

আটক অসীত কুমার বর্মন সাতক্ষীরা জেলা সদরের রাজনগর গ্রামের অমল কুমার বর্মনের ছেলে ও নুসরাত জাহান পলি তালা উপজেলার হরিনগর গ্রামের জাহাতাব উদ্দিন গোলদারের মেয়ে।

এ ঘটনায় পলির স্বামী মিজানুর রহমান বাদী হয়ে স্ত্রী ও শিক্ষা কর্মকর্তা অসীত কুমার বর্মণকে আসামি করে একটি মামলা করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা খুলনা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুব্রত কুমার বাড়ই জানান, ‘নুসরাত জাহান পলির স্বামী এসএম মিজানুর রহমান বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকার উদ্দেশে বাসা থেকে রওনা দেন। কিন্তু, কিছু ফেলে আসায় তিনি সাত রাস্তার মোড় পর্যন্ত গিয়ে ফের বাসায় ফেরেন। এ সময় মিজানুর রহমান রাত সাড়ে নয়টার দিকে নিজ বাসায় স্ত্রী ও শিক্ষা কর্মকর্তা অসীত কুমার বর্মণকে আপত্তিকর অবস্থায় হাতেনাতে ধরে ফেলেন। পরে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় তাদের ধরে পুলিশে সোপর্দ করেন তিনি।’

তিনি আরও বলেন, ‘তাদের বিরুদ্ধে ৪৯৭, ৫০৬, ৪০৬ ধারায় ব্যাভিচারের মামলা হয়েছে। দু’জনেই বিবাহিত। দীর্ঘ দিন ধরেই তারা অবৈধ সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে বলে এলাকাবাসী অভিযোগ করেছেন।’

শুক্রবার (১৫ ডিসেম্বর) তাদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: