মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ ফাল্গুন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বিদেশি বিজ্ঞানী-গবেষকদের ফ্রি ভিসা দেবে সৌদি আরব  » «   আগুনে পুড়ে প্রতিবন্ধি যুবক নিহত  » «   দুই বাসের সংঘর্ষে প্রাণ গেল ২ জনের  » «   ঝিনাইদহে পান চাষীকে হত্যা, মুলহোতাসহ গ্রেফতার ৪  » «   বড়লেখায় ভুয়া চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আইনী নোটিশ  » «   খালেদা জিয়ার রায় নিয়ে যা বললেন কাদের সিদ্দিকী!  » «   প্রশ্নফাঁসের অভিযোগে ৪ শিক্ষকসহ গ্রেফতার ৫  » «   এক ম্যাচে ১০ লাল কার্ড!  » «   সিরিয়ায় বিমান হামলায় নিহত ৭৭  » «   এক আসামীকে চারবার ফাঁসির আদেশ!  » «   চুরির অভিযোগে শিশুকে রাতভর নির্যাতন  » «   টিক মারা বন্ধ করে দেব, প্রশ্ন ফাঁস প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী  » «   একুশে পদক প্রদান করছেন প্রধানমন্ত্রী  » «   ‘ইন্ডাস্ট্রিতে আসার পর কণ্ঠস্বর নিয়ে অনেক সমালোচনার মুখে পড়ি’  » «   ধর্ষণের সময় ছবি তুলে ‘ব্ল্যাকমেল’  » «  

অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ সহ নানা অভিযোগ



ঠাকুরগাঁওয়ে কালেক্টরেট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎসহ বিভিন্ন অভিযোগ উঠেছে। ওই অধ্যক্ষের নানা অনিয়ম ও দূর্ণীতির বিরুদ্ধে ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবে অভিভাবকের পক্ষে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

লিখিত অভিযোগে ২০টি কারণ উল্লেখ করে ৩০ জন শিক্ষকের অস্তিত্বের স্বার্থে অভিযোগ সুষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে অধ্যক্ষ নলিনী মোহান্তের অপসারণ দাবী করা হয়।

অভিযোগ কপিতে পাঠদান কক্ষে শিক্ষার্থীদের কোচিং করতে বাধ্য করা, শিক্ষকদের সাথে খারাপ আচরণ, প্রকল্পের টাকা আত্মসাৎ, কাজ দেখিয়ে অতিরিক্ত বিল ভাউচার করা,এসএসসি ফরম পূরণে অতিরিক্ত টাকা নেওয়া সহ বেশকিছু অনিয়মের অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে।

স্কুলের কয়েকজন শিক্ষক জানান, স্কুলটি টিকিয়ে রাখতে হলে এসব অভিযোগ সুষ্ঠভাবে খতিয়ে দেখা প্রয়োজন। আমরা মনে করি আনিত অভিযোগগুলো একেকটি অনিয়মের দৃষ্টান্ত। অধ্যক্ষের কারণে দিন দিন স্কুলটির শিক্ষার মান নিচে নেমে যাচ্ছে। এখনি এ বিষয়ে পদক্ষেপ না নিলে শিক্ষার মান আরো খারাপ হওয়ার আশংকার কথা জানান তারা।

এ বিষয়ে ঠাকুরগাঁও কালেকক্টর পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ নলিনী মোহন্তের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন এবং বলেন, এসব অভিযোগ পুরোনো।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের এপ্রিল মাসে বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা অধ্যক্ষের নানা অনিয়মের চিত্র তুলে ধরে অধ্যক্ষ নলিনী মোহন্তের অপসারণের দাবিতে একটি অভিযোগ পত্র বিদ্যালয়ের সভাপতি তথা জেলা প্রশাসকের দপ্তরে জমা দিলেও সে বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটি।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: